শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাবেনা বিএনপি


সত্যবাণী ডেস্ক: ‘শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে পাতানো জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি যাবে না, দেশের জনগণ আগামীতে প্রহসনের নির্বাচনের আয়োজন প্রতিহত করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ’।

সোমবার যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি এসব কথা বলেন।

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালিকের সভাপতিত্বে ও প্রথম যুগ্ম সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মামুনের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জাস্ট নিউজ সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক সহকারি প্রেস সচিব মুশফিকুল ফজল আনসারী।

শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বলেন, দেশের সর্বত্র আজ চলছে অরাজকতা ও লুটপাট। আওয়ামী লীগের কমিশন বাণিজ্যে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে নেমে এসেছে স্থবিরতা। ফ্যাসিস্ট আওয়ামী বাকশালী সরকার দেশব্যাপী অব্যাহত গুম, হত্যা, নির্যাতন, নিপীড়ন ও সাজানো মিথ্যা মামলার মাধ্যমে বিরোধী দলের কণ্ঠ স্তব্ধ করে ক্ষমতার মসনদ চিরস্থায়ী করতে চায়। কিন্তু শহীদ জিয়ার সূর্য সৈনিকরা শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করবে। তিনি অবিলম্বে বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলী, কমিশনার চৌধুরী আলমসহ সরকার কর্তৃক গুম হওয়া বিরোধীদলের সকল নেতাকর্মীকে জনগণের মধ্যে ফিরিয়ে দেওয়ার জোর দাবী জানান। তিনি দেশে বিদেশে সবাইকে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে সর্বদা প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে এম এ মালিক বলেন, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিসর্জন দিয়ে শেখ হাসিনা নিজের ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে সামরিক চুক্তির মাধ্যমে দেশকে প্রতিবেশি ভারতের হাতে তুলে দিচ্ছেন। দেশ স্বাধীনের পর শেখ মুজিবুর রহমান ভারতের সাথে ২৫ বছরের গোলামী চুক্তি করেছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত মসনদ রক্ষা করতে পারেননি, শেখ হাসিনাও পারবেন না।

মুশফিকুল ফজল আনসারী বলেন, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয় গণতন্ত্রকে হত্যা করে দেশকে আধিপত্যবাদীদের হাতে তুলে দিয়ে পরাধীনতার শৃঙ্খলে আবদ্ধ করে চলেছেন অবৈধ শাসক শেখ হাসিনা। তবে এদেশের মানুষ পরাধীনতার শৃঙ্খলকে কখনোই বরদাস্ত করবে না। শেখ হাসিনাকে অবশ্যই বিদায় নিতে হবে। সে বিদায় কতোটুকু করুণ সেটাই এখন দেখার পালা।

কেবলমাত্র অবৈধ ক্ষমতাকে ধরে রাখতে সরকার একের পর এক হত্যা, গুম, খুন চালিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মানবাধিকার সংস্থা আইন ও সালিস কেন্দ্রের রিপোর্ট মতে কেবল চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ এই ৩ মাসে ৫৯ জন বিরোধী নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে র‌্যাব ও পুলিশ।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, মোঃ গোলাম রাব্বানী, প্রফেসর মোঃ ফরিদ উদ্দিন, উপদেষ্টা তৈমুছ আলী, যুগ্ম-সম্পাদক ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নসরুল্লাহ খান জুনায়েদ, যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সদস্য আলহাজ্ব সাদিক মিয়া, দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান জাহিদ, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক আবু নাসের শেখ, লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহসভাপতি শফিকুল ইসলাম রিবলু, যুক্তরাজ্য বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক সেলিম আহমেদ, সহ ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সরফরাজ আহমেদ সরফু, সহ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জাহিদ হাসান গাজী, সদস্য শাহেদ আহমেদ চৌধুরী, মিল্টন কিংস বিএনপির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ সাহেল, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এস এম লিটন, নিউহাম বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সেবুল মিয়া, ইপসউইচ বিএনপির সভাপতি জুলফিকার আলী, সাধারণ সম্পাদক বি এ চৌধুরী আরিফ, লন্ডন মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সায়েদ উদ্দিন চৌধুরী, মহিলা দলের আহ্বায়ক ফেরদৌস রহমান, আবুল কালাম আজাদ, অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন আহমেদ, সোহেল আহমেদ, মইনুল ইসলাম, মাসুক আহমেদ, মোঃ রেজাউল করিম, ইশতিয়াক আহমেদ, জিয়াউর রহমান, সিদ্দিকুর রহমান, মোঃ ওমর গনি, মোঃ আতাউর রহমান, মোমিন মিয়া, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুরে আলম সোহেল, মিল্টন কিংস বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল মজিদ মতিন, নিউ হাম বিএনপির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মাকসুদুর রহমান, কেমব্রিজ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান আহমেদ, মাওলানা শামিম আহমেদ, বিএনপি নেতা মোজাহিদুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মিসবাহ বি এস চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, যুবদলের সাবেক সভাপতি রহিম উদ্দিন, যুবদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক লায়েক মোস্তফা, যুবদল নেতা আফজাল হোসেন, দেওয়ান আব্দুল বাছিত, আক্তার হোসেন শাহিন, শাহাজাহান আহমেদ, বাবর চৌধুরী, নুরুল আলী রিপন, আলকু মিয়া, ডাক্তার মন্সুর আহমেদ, সুয়েদুল হাসান, মোশারফ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি শরিফুল ইসলাম, জিয়াউল ইসলাম জিয়া, জাসাসের সিনিয়র নেতা তরিকুর রশিদ চৌধুরী শওকত, আব্দুল মোত্তালিব লিটন, ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম মিরাজ, আমিনুল ইসলাম, ইমতিয়াজ এনাম তানিম, মোঃ শফিউল আলম মুরাদ, এ কে এম নাসের উদ্দিন, মনির আহমেদ, ফয়সল আহমেদ, বিভাষ চন্দ্র সাহা, মোঃ খালেদ রিয়াদ, মোঃ এম আর সাজিব প্রমুখ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

19th April’ 2017, 22:17 BST

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.