‘পুনশ্চ’র মনোজ্ঞ আবৃত্তি সন্ধ্যা


নিলুফা ইয়াসমীন
বার্তা সম্পাদক, সত্যবাণী

লন্ডন: আবৃত্তির ছন্দে ‘নক্ষত্রের আলোয় দেখা জীবন‘। হাসি কান্নায় জড়ানো জীবনের প্রাচুর্যকে চিত্রকল্পে ছন্দের মাধুর্য্যে তুলে এনেছে ‘পুনশ্চ’।
২৭ জানুয়ারী শনিবার পূর্ব লন্ডনের ব্রাডি আর্ট সেন্টারে আবৃত্তি সংগঠন পুনশ্চ-এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো মনোজ্ঞ আবৃত্তি সন্ধ্যা ও নির্বাচিত কবিতার আবৃত্তি সিডির মোড়ক উন্মোচন।
E2126D00-5896-4737-B8D0-89A9408CF719শনিবারে আবহাওয়া ছিল বৈরী, তাতে কি? বৈরী আবহাওয়া রুখতে পারেনি কবিতাপ্রেমীকে। বৃষ্টি ভেজা বিকেলে চায়ের সাথে গরম গরম পেঁয়াজু দিয়ে আপ্যায়ন করা হয় অপেক্ষমান শ্রোতাদের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বিশিষ্ট আবৃত্তিকার রূপা চক্রবর্তীর গ্রন্থণা, নির্দেশনা ও অংশগ্রহণে বিভিন্ন স্বনামধন্য কবির কবিতা থেকে একক, যুগল ও সমবেত আবৃত্তি করেন বিলেতের প্রতিষ্ঠিত আটজন বাচিক শিল্পী।
‘ছেলেটি খোঁড়েনি মাটিতে মধুর জল! মেয়েটি কখনো পরে নাই নাকচাবি। ছেলেটি তবুও গায় জীবনের গান. . .‘। আবুল হাসানের পৃথক পালঙ্ক কাব্যগ্রন্থের ‘যুগলসন্ধি‘ কবিতাকে ছন্দময় করে তুলেন আরফুমান চৌধুরী ও এস এ চৌধুরী সাদি। শহীদুল ইসলাম সাগর ও মুনীরা পারভীন আবৃত্তি করেন আল মাহমুদের ‘সমুদ্র নিষাদ‘। আহসান হাবীবের ‘দোতালার ল্যান্ডিং মুখোমুখি ফ্ল্যাট একজন সিঁড়িতে, একজন দরজায়‘ কবিতার শাহানা ও মাহবুব হোসেনের চরিত্রে আবৃত্তি করেন লুৎফুন নাহার বেবী ও তৌহিদ শাকীল। মোস্তফা জামান নিপুন, সাগর ও সাদীর চমৎকার পরিবেশনা ছিল বদরুন নাহারের কবিতা ‘আমাদের গ্রামে মালো পাড়া নেই‘।

2A1D2511-86D1-4E24-9D79-BC8343928BB8কবিগুরু রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের কবিতা ‘দুই বোন‘ – দুটি বোন তারা হেসে যায় কেন . . এবং বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘দুই বালিকার গান ‘ – ধানের ক্ষেতে ঢেউ উঠেছে বাঁশ তোলাতে জল। আয় আয় সই, জল আনি গে, জল আনি গে চল।। এই দুটি কবিতা দর্শকদের মুগ্ধতায় ভরিয়ে তোলেন বেবী, মুনিরা, আরফু ও মহুয়া তাদের কন্ঠের মাধুর্য্য।ে কবি ওমর আলীর কবিতা ‘আমি কিন্তু যামুগা‘ থেকে আমারে চেতাইলে তোমার লগে থাকুম না।.. তুমি বড় দুষ্টু, তুমি আমারে চেতায়ে সুখ পাও, অভিমানে কাঁদি, তুমি তখন আনন্দে হাসতে থাকো। মুনিরা যখন অভিমানের সুরে আবৃত্তি করছিলেন দর্শকও তখন অনেক মজা পেয়ে আনন্দে হাসছিলেন।
রূপা চক্রবর্তীর কন্ঠে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘ফাল্গনী‘, ও রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লার ‘মানুষের মানচিত্র‘ শ্রোতারা মুগ্ধ হয়ে উপভোগ করেন।
7E3A1E67-78C2-4408-9FC4-931E31F628C5আবু হেনা কামালের ‘গালিবের ইচ্ছা‘, ও জীবনানন্দ দাশের ‘হাওয়ার রাত‘ এককভাবে আবৃত্তি করেন সাগর।
রর্বীদ্রনাথ ঠাকুরের ‘কত অজানারে জানাইলে তুমি‘ আবৃত্তি করেছেন শাকীল। নিপুনের কন্ঠে অরুন মিত্রের ‘রিক্সাওয়ালা‘, আরফুর কন্ঠে জসীম উদ্দীনের ‘হেলেনা‘ – নতুন নাতিনী, সুচারু হাসিনী, মধুর ভাষিনী ললনা, হলুদে চুনেতে মিশাতে কিছুতে হয় না তাহার তুলনা।, মহুয়ার কন্ঠে আবিদ আজাদের ‘বোতাম‘, বেবীর কন্ঠে রুবী রহমানের লেখা কবিতা ‘ক্ষতি‘ দারুন লেগেছে।
সুকুমার রায়ের ‘ডাক্তার ফস্টার‘, কাজী নজরুল ইসলামের ‘প্রবর্তকের ঘুর -চাকায়‘, কুসুমকুমারী দাশের ‘আদর্শ ছেলে‘, মারুফুল ইসলামের ‘শীত‘ ও ‘ইচ্ছে‘ এবং দিনেশ দাশের ‘দোলনা‘, কালী প্রসন্ন ঘোষের ‘পারিব না‘, জয় গোস্বামীর ‘নুন‘, আহমেদ শিপলুর ‘তুমি রূপজান হলে আমি মেহের আলী‘ দ্বৈত ও সমবেত কন্ঠের ছন্দে ছন্দে আবৃত্তি উপস্থিত শ্রোতাদের নিয়ে গেছে কখনো ছোট বেলায়, মনে করিয়ে দিয়েছে কৈশরের প্রেম, ছোট্ট গাঁয়ের সবুজ ক্ষেত। শ্রোতাদের মনে স্মৃতি জাগানিয়া কবিতার রেশ থাকবে দীর্ঘদিন। আবৃত্তি পর্ব শেষে উপস্থিত দর্শকরা দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানান শিল্পীদের।
দ্বিতীয় পর্বে বিলেতের বিশিষ্ট কবি শামীম আজাদ ‘পুনশ্চ‘র পরিবেশনায় ‘নির্বাচত‘ কবিতার আবৃত্তির সিডির মোড়ক উন্মোচন করেন। তিনি বলেন, বাচিক শিল্পীদের পরিবেশনায় আমি মুগ্ধ। তারা কবির কবিতা আবৃত্তি করতে করতে একেকজন বড় কবি হয়ে গেছেন।
স্বনামধন্য কবিদের প্রায় ৪০ টি কবিতার আবৃত্তি আছে এই ‘নির্বাচিত‘ সিডিতে। কাজী নজরুল ইসলামের ‘বাংলাদেশ‘, ‘আপন পিয়াসী‘ ও ‘বাসন্তী‘। রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের ‘সোনার তরী‘, ‘কুয়ার ধারে‘, ‘শেষের কবিতা‘, ‘প্রশ্ন‘ ‘আফ্রিকা‘, ‘পরিচয়‘ও ‘জন্মদিনে‘। রফিক আজাদের ‘প্রতীক্ষা‘, নির্মলেন্দু গুণের ‘মানুষ‘, জীবনানন্দ দাশের ‘মেয়ে‘, সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের ‘শুন্য নয়‘, সৈয়দ শামসুল হকের ‘পরানের গহীন ভিতর‘, শামসুর রহমানের ‘অভিশাপ দিচ্ছি‘, ফরহাদ মজহারের ‘কর্তৃত্ব গ্রহণ কর নারী‘, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘উত্তরাধিকার‘, জসিম উদ্দিনের ‘নিমন্ত্রণ‘, রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর ‘মানুষের মানচিত্র ১৩‘ , হেলাল হাফিজের ‘প্রস্থান‘এবং সুনির্মল বসু, মহাদেব সাহা, নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী, আবুল হাসান, শহীদ কাদরী, মুস্তফা মীর, প্রীতম বসু, কাজী লাবণ্য, জয় গোস্বামী, ভাস্কর চৌধুরী ও শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কবিতাও রয়েছে এই সিডিতে। সিডির নির্বাচিত কবিতাগুলো যারা আবৃত্তি করেছেন তারা হলেন – উদয় শঙ্কর দাশ, রূপা চক্রবর্তী, শহীদুল ইসলাম সাগর, মুনিরা পারভীন, তৌহিদ শাকীল, মোস্তফা জামান নিপুন, আরফুমান চৌধুরী, এস এ চৌধুরী সাদি ও মহুয়া চৌধুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.