দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রির সমমান দেওয়ার আইনের খসড়ায় অনুমোদন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দিতে আইনের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।

সোমবার সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, আগে থেকেই হয়ে (কওমি সনদের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে) আসছে, সেটিকে আইনি কাঠামোতে নিয়ে আসা হচ্ছে।তিনি জানান, প্রস্তাবিত আইনটির নাম ‘কওমি মাদ্রাসাসমূহের দাওরায়ে হাদিসের (তাকমিল) সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি) সমমান প্রদান আইন, ২০১৮’।সারা দেশে ছয়টি বোর্ড কওমি মাদ্রাসাগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করছে জানিয়ে শফিউল বলেন, এদের নিয়ে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড করা হবে।মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে যারা দাওরায়ে হাদিস পাস করেছেন, তারাই মাস্টার্স ডিগ্রি সমমানের সনদ পাবেন।

সচিব জানান, সারা দেশে কওমি মাদ্রাসার ছয়টি বোর্ড রয়েছে। এই ছয়টি বোর্ডের সমন্বয়ে ঢাকায় একটি কমিটি হবে। কমিটি হবে ১৫ সদস্যের। ছয় বোর্ড থেকে দুজন করে কমিটিতে থাকবেন।এ ছাড়া একজন চেয়ারম্যান, একজন ভাইস চেয়ারম্যান ও একজন মহাপরিচালক থাকবেন। এই কমিটিই সনদ প্রদান করবে।২০১৭ সালের ১১ এপ্রিল কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দেয়ার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে এর দুদিন পর কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দিয়ে আদেশ জারি করে সরকার।এ বিষয়ে নতুন আইন পাস হওয়ার আগেই গত মার্চে ১০১০ কওমি আলেমকে মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম (ষষ্ঠ পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেয়া হয়।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.