যুক্তরাজ্যে জরুরী অবস্থা ঘোষণা: দুই জনের বেশি জমায়েত নিষিদ্ধ


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
সত্যবাণী

লন্ডন: করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জরুরী অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে যুক্তরাজ্যে।

সোমবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৮টায় জাতীর উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষনে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সারা দেশে লকডাউন ঘোষণা করে বলেছেন, ‘করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়ংকর ঝুঁকির সম্মুখিন  যুক্তরাজ্য। এই ভাইরাসের বিস্তার রুখতে না পারলে এক ভয়ানক পরিস্থিতির মুখোমুখি হবো আমরা। সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে এই ভাইরাসের বিস্তৃতি এখনই  ঠেকাতে না পারলে এমন একটি সময় আসবে যখন বিশ্বের কোন স্বাস্থ্য ব্যবস্থাই এই ভাইরাসের মোকাবেলা করতে পারবে না।কারণ, মানব মৃত্যুর হার তখন এমন পর্যায়ে পৌছবে যে চিকিৎসার জন্য ডাক্তার ও পর্যাপ্ত  নার্স, এমনকি ভেনটিলেট, ইনটেনসিভ বেড কিছুই আর পাওয়া যাবেনা।

লক ডাউন ঘোষণা করে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জরুরী পণ্যসামগ্রী ও ওষুধ ক্রয় ছাড়া ঘরের বাইরে যেতে নিষেধ করেন তাঁর দেশের প্রতিটি নাগরিককে। বলেন, ‘একবার ব্যায়াম এবং জরুরী কাজ ছাড়া ঘরের বাইরে যাওয়া যাবেনা।’ একসাথে দুইজনের বেশি জমায়েত নিষিদ্ধ ঘোষণা করে তিনি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, ‘আইন ভঙ্গকারীদের জরিমানা করা হবে।কেউ এসব নিদের্শ অমান্য করলে পুলিশ ব্যবস্থা নিতে পারবে’।

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর দোকান ছাড়া অন্যান্য সব ধরনের দোকান অনতিবিলম্বে বন্ধের নিদের্শ দেন বরিস জনসন। লাইব্রেরী, খেলার স্থান, ব্যায়ামাগার এমনকি উপাসনালয়ও বন্ধ থাকবে বলে ঘোষণা দেন তিনি। তবে পার্ক খোলা থাকলেও জনসমাগম সীমিত থাকবে বলে জানান তিনি।

শেষকৃত্য ছাড়া সকল ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠান, বিয়ে এবং ধর্মীয় সমাবেশও বন্ধ থাকবে বলে ঘোষণা দেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘তিন সপ্তাহ পর পরিস্থিতি বুঝে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে’।

উল্লেখ্য, সোমবার পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৩৫ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬৬৫০ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.