লন্ডনে কুমিল্লা এসোসিয়েশন নামে নতুন সংগঠনে ব্যাপক মারামারি, আহত ২জন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

লন্ডনে বসবাসরত কিছু সংখ্যাক কুমিল্লাবাসীরে নিয়ে আত্মপ্রকাশ করতে যাওয়া সংগঠন কুমিল্লা এসোসিয়েশনের অনুষ্ঠানে ব্যাপক মারামারি, আহত ২জন । শুক্রবার পূর্বলন্ডনের আলহামরা রেস্টুরেন্টে সংগঠনের কমিটি গঠন- পদ পদবী নিয়ে এই মারামারি সংগঠিত হয় ।

যদিও সংগঠনটি এখনো পুরোপুরি ভাবে আত্মপ্রকাশ করতে পারেনি । লন্ডনে বসবাসরত ইউরোপ থেকে আসা কিছু নাগরিকদের নিয়ে এই সংগঠনে যাত্রা । কিন্তু শুরুতেই সংগঠনটি বেশ হিমশিম খাচ্ছে আহবায়ক কমিটি গঠন নিয়ে। কি ভাবে সংগঠনটি কাজ করবে ? তা নিয়েও হিমশিম খাচ্ছে সংগঠনের সাথে জড়িতরা । মূলত সভাপতি এবং সেক্রেটারী হিসেবে অনেকে পদের জন্য দাবী করছেন । যদিও সংগঠনটির কোন আহবায়ক কমিটি এখনো গঠিত হয়নি । এছাড়া সাংগঠনিক কোন সংবিধান তৈরি করা হয়নি ।

লন্ডনে বিপুল সংখ্যাক কুমিল্লাবাসীর বসবাস । উন্নত শিক্ষায় বেশ প্রতিষ্ঠিত কুমিল্লার বাসিন্দারা । ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, ব্যবসায়ী ,প্রফেসর সহ নানা পেশায় জড়িত তারা । কিন্তু হঠাৎ করে ইউরোপ থেকে এক ঝাক কুমিল্লাবাসী আসার পর থেকে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের দিকে সময় দেয়া । যার ফলে কুমিল্লা এসোসিয়েশন নামে একটি সংগঠনের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে তারা । যদিও কুমিল্লার বেশ কয়েকটি সংগঠন রয়েছে । ইউরোপ থেকে কুমিল্লা বাসীদের নিজেদের জন্য একটি প্লাটফর্ম তৈরির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বিগত দুই বছর যাবৎ । শূরুর দিকে কয়েকজন সক্রিয় সংগঠকের মাধ্যমে একটি নাম প্রকাশ করে তারা । কুমিল্লা এসোসিয়েশনের নামে তারা তাদের যাত্রা শুরু করে । প্রতি দিন ছোট ছোট গোল টেবিল আর চায়ের টেবিলের আড্ডা দিয়ে যাচ্ছে । কিন্তু ইউরোপ থেকে আসা নাগরিকদের সাথে লন্ডনে বাসিন্দারা কেউ এই সংগঠন সাথে জড়িত হতে রাজি হচ্ছিল না । সবে মাত্র ইউরোপ থেকে আগতরা বৃটিশ কৃষ্টি কালচার শেখতে শুরূ করেছে । কারন লন্ডন ইউরোপের মধ্যে অন্যতম ।

Untitled-8-1024x474

নতুন এই সংগঠনটি প্রতি নিয়ত ছোট ছোট ইসুতে হাতাহাতি  শুরু করে দিচ্ছে বলে জানা যায় । গত ইফতার পার্টিতেও হাতাহাতির পর্যায়ে চলে যায় । কিন্তু সর্বশেষ সংগঠনটির চুড়ান্ত পর্যায়ে আলোচনা সভায় ব্যাপক হাতাহাতিতে বেশ কয়েক জন আহত হয় । পরিশেষে অনুষ্ঠানে অনেকে এই সংগঠনটি বন্ধ করার দাবী তুলেন । তারা মনে করেন, এই সংগঠন নিজেদের ভিতর সুসম্পর্ক বৃদ্ধি করতে হিমশিম খাবে । বরং প্রবাসে কুমিল্লাবাসীদের সুনাম নষ্ট করবে । কুমিল্লা প্রবাসী ইঞ্জিনিয়ার কামাল হোসেন বলেন, এই ধরনের মানুষ গুলো কখনো ভালো কিছু করতে পারে না বরং নিজেদের মাঝে মারামারি বৃদ্ধি করে থাকে । তাই তিনি এই সংগঠনটি বন্ধের দাবী তুলেন ।

 

Untitled-4-1024x506

 

 

Untitled-4-1024x506

source: europaer khatha

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *