ব্রিটেনে ৬ মাসে ৪শ’রও বেশি অ্যাসিড হামলা


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

সত্যবাণী ডেস্ক:: ব্রিটেনে অ্যাসিড হামলায় জড়িতদের শাস্তির বিধান সংক্রান্ত আইন পুনর্বিবেচনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে সোমবার পার্লামেন্টে বিতর্কের কথা রয়েছে। ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাম্বার রুড অ্যাসিড সন্ত্রাসীদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এরমধ্যেই উত্তর-পূর্ব লন্ডনে ৫টি এসিড হামলার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আটক দুই কিশোরের মধ্যে একজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে পুলিশ। এদিকে, গত বছরের শেষ থেকে এ বছরের এপ্রিল পর্যন্ত ব্রিটেনে ৪শ’রও বেশি অ্যাসিড হামলা হয় বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার রাতে দেড় ঘণ্টার ব্যবধানে উত্তর-পূর্ব লন্ডনে ৫টি এসিড হামলার পর ব্রিটেনজুড়ে চলছে তীব্র সমালোচনা। কেউ কেউ এর জন্য সরকার ও নিরাপত্তা বাহিনীর উদাসীনতাকে দায়ী করলেও অনেকেই বলছেন আইনে দুর্বলতার সুযোগে এই এসিড সন্ত্রাস বেড়েই চলেছে। এ অবস্থায় সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছে সম্প্রতি এসিড হামলা শিকার হওয়া বেশ কয়েকজন।

এসিড হামলার শিকার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ জাভেদ হোসেন বলেন, ‘আমার দিকে পানির মতো কিছু একটা ছুড়ে মারা হলো। মাথায় হেলমেট থাকার পরও মুখোমুণ্ডল আগুনের মতো গরম হয়ে যায়। সামান্য জখম ছাড়া বড় কোনো সমস্যা না হলেও এই ভয়াবহ অভিজ্ঞতা জীবনে ভুলবো না। আমরা এসিড অপরাধ বিষয়ে আইন সংশোধন করে তা আরও কঠোর করতে সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি।’

এদিকে, গতমাসে এসিড হামলার শিকার হয়ে গুরুতর আহত হওয়া ব্রিটিশ মডেল রেশাম খান, এসিড জাতীয় ক্ষতিকর পদার্থ লাইসেন্স ছাড়া বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির দাবিতে অনলাইনে একটি পিটিশন দাখিল করেছেন। এরই মধ্যে তাতে কয়েক লাখ ব্রিটিশ স্বাক্ষর করেছেন বলে জানায় গণমাধ্যম।

সম্প্রতি ব্রিটেনে এসিড হামলা আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে এ সংক্রান্ত আইন আরও কঠোর করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এরইমধ্যে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাম্বার রুড আইন সংশোধনের পরিকল্পনা প্রকাশ করেছেন।

সানডে টাইমসকে এক সাক্ষাৎকারে, আইন সংশোধনের মাধ্যমে এসিড হামলাকারীদের শাস্তি বাড়িয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড করার ইঙ্গিত দেন তিনি। এসিড হামলার ঘটনায় বিদ্যমান আইন অনুযায়ী কোনো অপরাধীর সর্বোচ্চ ৪ বছরের সাজার বিধান রয়েছে। এ বিষয়ে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে সোমবার বিতর্ক অনুষ্ঠানেরও কথা রয়েছে।

এদিকে, তিনদিন আগে উত্তর-পূর্ব লন্ডনে ৫টি এসিড হামলার ঘটনায় আটক সন্দেহভাজন দুইজনের মধ্যে ১৬ বছরের কিশোরের বিরুদ্ধে, শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। হামলার কারণ সম্পর্কে জানতে এখনো তদন্ত চলছে বলেও জানান তারা।

২০১২ সালের তুলনায় গত এক বছরে এসিড হামলার ঘটনা দ্বিগুণ হারে বেড়েছে বলে এক হিসেবে জানা গেছে। দেশটির পুলিশের তথ্যমতে, গত বছরের নভেম্বর থেকে এ বছরের এপ্রিল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যের ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে ৪শ’রও বেশি এসিড হামলা হয়।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *