ব্রিটেন থেকে ৫০০০ ইইউ নাগরিক বিতাড়িত


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

সত্যবাণী ডেস্ক::  ব্রেক্সিটের গনভোটের পর ব্রিটেন থেকে ইইউর নাগরিকদের প্রত্যাহার করার সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে, যেখানে মন্ত্রীরা ইইউ সিটিজেনদের  অধিকার নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বলে দ্যা ইন্ডিপেন্ডেন্টের এক তথ্যে প্রকাশ পেয়েছে । সরকারি তথ্য বিশ্লেষনে দেখা যায়,  গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২০১৭ এর প্রথম তিন মাসে ইইউ নাগরিকদের ২৬ শতাংশের বেশি প্রত্যাহার করার  পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এছাড়া  গত ১২ মাসে প্রায় ৫০০০ ইইউ নাগরিককে ব্রিটেন থেকে বিতাড়িত করা হয় । যা বর্তমানে সর্বোচ্চ সংখ্যাক রেকর্ড । এদিকে  বিচ্ছেদের পর ইউরোপীয় ইউনিয়নের নাগরিকদের অভিবাসন ঠেকাতে যুক্তরাজ্য যে পরিকল্পনা নিয়েছে, তা ফাঁস হয়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই পরিসংখ্যান আসে । ৮২ পৃষ্ঠার গোপন নথিতে হোম অফিস  ইইউ নাগরিকদের প্রবেশাধিকার ঠেকানোর পরিকল্পনা চিত্রিত করে। একটি গোপন সূত্র ইংরেজি দৈনিক গার্ডিয়ানের হাতে ওই নথি তুলে দিয়েছে।

তবে অভিবাসনবিরোধী ও ব্রেক্সিটপন্থী রাজনীতিকেরা সরকারের কঠোর নীতির পক্ষেই সাফাই গেয়েছেন। আর ইইউ’র পক্ষে ব্রেক্সিট বিষয়ক সমঝোতা কমিটির সদস্য জার্মান রাজনীতিক এলমার ব্রোক বলেছেন, ফাঁস হওয়া পরিকল্পনায় ইইউ নাগরিকদের অধিকার নিয়ে কোনো বিবেচনাবোধ নেই। যুক্তরাজ্যের এমন অবস্থান ব্রেক্সিট সমঝোতার ক্ষেত্রে অবিশ্বাস ও আস্থার সংকটকে আরও জোরালো করবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

গত মাসে এই খসড়া নীতি চূড়ান্ত করা হয়, যা ‘অতি স্পর্শকাতর’ এক্সট্রিমলি সেনসেটিভ হিসেবে চিহ্নিত। খসড়া পরিকল্পনায় বলা হয়েছে, ২০১৯ সালের মার্চ মাসে ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়া মাত্রই ইইউ নাগরিকদের অবাধ প্রবেশাধিকার বন্ধ করা হবে। বিশেষ করে অদক্ষ শ্রমিকদের প্রবেশ ঠেকিয়ে ব্রিটিশদের কাজের সুযোগ বাড়ানো হবে। অদক্ষ কর্মীদের কর্ম ভিসা দেওয়া হবে সর্বোচ্চ দুই বছরের। আর দক্ষ কর্মীদের জন্য ভিসার মেয়াদ হবে তিন থেকে পাঁচ বছর। তাদের যুক্তরাজ্যে স্থায়ী হওয়ার সুযোগ সীমিত করতেই এই ব্যবস্থা।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *