প্যারিসে ‘বাংলা ডে’ অনুষ্ঠিত


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

দেলওয়ার হোসেন সেলিম
সত্যবাণী

প্যারিস, ফ্রান্স থেকে: প্যারিসের অদূরেই বিশাল এলাকা জুড়ে অবস্থিত গুড প্ল্যানেট ফাউন্ডেশন । সবুজে ঘেরা, ছায়া ঢাকা, পাখি ডাকা, স্নিগ্ধ পরিবেশ । সারি সারি নানান জাতের গাছের সমারোহ । বনজ, ফলজ, ঔষধি, শোভা বর্ধনকারী – কিছুই যেনো বাদ নেই। এমনি চমৎকার পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো গুড প্ল্যানেট ফাউন্ডেশন এবং ফ্রেন্ডশীপ বাংলাদেশ – এর যৌথ উদ্যোগে ‘বাংলা ডে’ অনুষ্ঠান । গত রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭) দিনব্যাপী এই অনুষ্ঠান বিপুল সংখ্যক ফরাসী তথা ইউরোপীয়ান লোকজনের পাশাপাশি এখানকার প্রবাসী বাংলাদেশীদের উপস্থিতিতে উৎসব মুখর হয়ে ওঠে । ফ্রান্স ও বাংলাদেশের ‘ সেতু বন্ধন ‘ হিসেবে পরিণত হয় সমগ্র অনুষ্ঠানটি । আইফেল টাওয়ার হতে বাংলাদেশের দুরত্ব প্রায় ৮ হাজার কিলো মিটার । কিন্তু ফ্রান্সে ‘বাংলা ডে’ অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের মনে হয়েছিল যেনো এই অনুষ্ঠান স্বদেশের মাটিতেই উদযাপন করছেন । একদিনের জন্যে সবাই চলে গিয়ে ছিলেন প্রিয় মা, মাটি মানুষের সন্নিকটে ! এটাই ছিলো চমৎকার অনুভুতি ।

received_1484066301685729মনোরম পরিবেশে দেশের কৃষ্টি কালচার তুলে ধরার কোনো কমতি ছিল না দিনব্যাপী এই অনুষ্ঠানমালায় । বাংলাদেশের গান , পুঁথি সাহিত্য, শিশুদের. চিত্রাঙ্কন, ভয়েস অব বাংলাদেশ, বাংলাদেশের লাল সবুজ পতাকা , সোনালী আঁশ অর্থাৎ পাটের তৈরী পণ্য, বেতের তৈরি জিনিসপত্র, পুরাতন জামদানি ও মসলিন কাপড়, আমাদের দেশের ঐতিহ্যবাহী নৌকার ছোট ছোট মডেল , ভ্যান গাড়ি , রিকশা , পুঁথি সাহিত্য, আলোকচিত্র , পোস্ট কার্ড, ফ্যাসটুন সকলের বিশেষ দৃষ্টি কেড়েছে । এদিন মনে হচ্ছিলো, এ যেনো ফ্রান্সের বুকে এক টুকরো বাংলাদেশ ।

প্রথমবারের মতো, ফ্রান্সের এমন স্বনামধন্য এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ পেয়ে বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন ফ্রান্সে (বিসিএফ) – এর সকল সদস্য উৎসাহ উদ্দিপনার সাথে অংশ নিয়েছিলেন । তাঁরা সেখানে রকমারি মিষ্টি যেমন : রসগোল্লা , চমচম , কাঁচা গোল্লা , রসমলাই সহ আরো অনেক খাবার, পানীয় এবং স্নাক্স পরিবেশন করেন । ফরাসীরা অনেকটা লাইন ধরেই বাংলা খাবার খেয়ে তৃপ্তির ঢেকুর তোলেন । সৈয়দ মুজতবা আলীর ‘রসগোল্লা ‘ গল্পে যেমন ইতালির চুঙ্গিঘরের সবাই রসগোল্লার স্বাদে মজেছিলেন ঠিক তেমনি ‘বাংলা ডে’ ইভেন্টে ফরাসীরাও সকলেই বাংলাদেশীয় সুস্বাধু খাবার বিশেষ করে মিষ্টি খেয়ে মুগ্দ্ধ হয়েছেন ।

20170910_131531প্রবাসী অনেক বাংলাদেশী অবাক হয়েছেন ফরাসি ছেলেদের লুঙ্গি পড়া দেখে । একজন ফরাসী বেশ আনন্দের সাথে রিকশা ভ্যানে করে বাংলাদেশী প্রবাসীদের নিয়ে ঘুরে বেড়িয়েছেন । বিদেশের মাটিতে ভিনদেশি যুবকদের আমাদের দেশের এই ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরা দেখে অনেকেই সেলফি তুলেছেন । অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়া ফেইসবুকে লাইভ করেছেন । এই প্রোগ্রামে প্রায় ১০০০ জন আমন্ত্রিত অতিথি এসেছিলেন যাঁর অধিকাংশই ছিলেন ফরাসি । বিশেষ এ প্রগ্রামের ইভেন্টের মধ্যে ছিলো : বাংলা দেশের ঐতিহ্যবাহী নাচ , গান, আল্পনা , বস্ত্র শিল্পের প্রদর্শনী , বাংলাদেশ কিভাবে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি গুলি মোকাবেলা করছে তার উপর ইয়ান আর্খথুস-বার্খথোন (Yann Arthus-Bertrand), আনাস্তাসিয়া মিকোভা কর্তৃক নির্মিত বিশেষ ডকুমেন্টারী প্রদর্শনী ইত্যাদি ।

received_1484065051685854ফ্রেন্ডশীপ ফ্রান্সের সেক্রেটারি জেনারেল নিকোলাস দোপোখতে – এর সঞ্চালনায় কনফারেন্স একসেপসিওনে দ্যু রোনা খান ইভেন্টে বক্তব্য রাখেন গুড প্ল্যানেট ফাউন্ডেশনের ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট ইয়ান আর্খথুস-বার্খথোন (Yann Arthus-Bertrand) , ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহিদুল ইসলাম , ফ্রেন্ডশীপ বাংলাদেশের পরিচালক, ফ্রান্সে ‘বাংলাদেশ ডে’ আয়োজনের অন্যতম রূপকার রুনা খান, বি সি এফ এম, ডি নুর প্রমুখ । ম্যাডাম রোনা খান তাঁর বক্তব্যে ফ্রেন্ডশীপ’র পরিচালিত আর্ত মানবতার কল্যাণে বিভিন্ন প্রকল্পের বিবরণ তোলে ধরেন। মুহূর্মূহ করতালির মাধ্যমে তাঁকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে । ফুলের তোড়া দিয়ে ফ্রান্সে বরণ করা হয় প্রিয় এই আপনজনকে । এসময় তিনি সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বিদেশের মাটিতে দেশকে উপস্থাপনে প্রবাসীদের ভুমিকা অনেক ।
উন্মুক্ত প্রশ্নোত্তর পর্বে পরবর্তীতে প্রবাসী বাংলাদেশীরা বলেন, এই ধরনের আয়োজনে খুব আনন্দিত হয়েছি । আমাদের দেশের সমৃদ্ধশালী সংস্কৃতিকে ফরাসিদের সামনে তুলে ধরতে এই ধরণের আয়োজন দরকার বলে তাঁরা মতামত ব্যাক্ত করেন । সিলেট টু লন্ডন ফেইসবুক পেইজের এডমিনরা কয়েকজনের অনুভূতি জানার জন্য সাক্ষাৎকার ভিত্তিক লাইভ প্রচার করেন।

21432739_10212698078699613_8202522972056188051_nঅনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাস প্যারিসের কাউন্সিলর এন্ড হেড অফ চ্যান্সারি হযরত আলী খান ও বাংলাদেশ দূতাবাসের জ্যৈষ্ঠ কর্মকর্তা আনিসা আমিন । ফ্রান্স প্রবাসীদের পাশাপাশি বি সি এফ এর পক্ষ থেকে অনেক মেম্বার উপস্থিত ছিলেন। যাঁদের মধ্যে অন্যতম বি সি এফ এর উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোজাম্মেল , রিয়াজ , আল মাহিন , আকাশ মোহামেদ হেলাল , শাহ জাহান , শাহেদ ভূইয়াঁ , রাকিব , হিরণ , ফটো সাংবাদিক ফরিদ আহমেদ রনি , এস এম আহসানুল করিম , আব্দুল আহাদ , আব্দুর রহমান শিপন , হোসাইন মোহাম্মদ মনির , কাব্য কামরুল , সিনিয়র সাংবাদিক দেলওয়ার হোসেন সেলিম, আব্দুল হাই ইমরান, হোসাইন মোহাম্মদ মনির , আবুল কালাম আজাদ , দেলোয়ার হোসাইন , মিয়া ফয়সাল , সোহেল , শিপন, শাহ জাহান চৌধুরীসহ ফ্রান্সে বসবাসরত অনেক গুণী শিল্পী।

received_10212720874109484এছাড়া, ফরাসী সাংবাদিক, সাহিত্যিক, আর্টিস্ট, সমাজ বিজ্ঞানীদের স্বতস্ফুর্ত অংশ গ্রহণে অনুষ্ঠান আরো জমজমাট হয়ে ওঠে । প্রবাসে বেড়ে উঠা শিশুদের মধ্যে ছিলো অন্য রকমের এক আমেজ। আবহমান বাংলার চিরায়ত ঐতিহ্য পুঁথি সাহিত্যের গান গেয়ে মাতিয়ে রাখেন পুঁথি কাব্য সাহিত্যিক কাব্য কামরুল । আর্টিস্ট প্লাস্টিসিয়েন টেক্সটাইল ডিজাইনার নিলুফার জাহানের লোকজ নকশা দিয়ে তৈরি কাপড়ের শিল্পকর্ম প্রদর্শনীতে ছিলো উপছে পড়া ভীড় ।  ইভেন্টের আকর্ষণ ছিলো লেখক ও কবি শেজার দজার কার্যক্রম এবং শিল্পী কাকলী সেন গুপ্তার কনসার্ট । কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব মোহাম্মদ হান্নান দেশে ফ্রেন্ডশীপ এর সেবামুলক বিভিন্ন কার্যক্রমের ভুঁয়শী প্রসংশা করে ধন্যবাদ জানিয়ে তাদেরকে বাংলাদেশের শারীরিক প্রতিবন্ধীদের সহযোগিতার অনুরোধ জানান । বিসিএফ এর পরিচালক এমডি নূর বলেন, ফ্রান্সের মাটিতে ফরাসিদের সহযোগিতায় এমন বিশাল আয়োজনে অংশ নিতে পেরে তাঁরা আনন্দে অভিভূত। তিনি প্রতি বছর অন্তত একটা দিন ফ্রান্সের মাটিতে বাংলা ডে আয়োজন করার জন্য বিসিএফ – এর পক্ষ থেকে অনুরোধ জানান ।

বিশ্বের অন্যতম শিল্পকলা, সাহিত্য, সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্যারিসে প্রতি বছর ধারাবাহিকভাবে ‘বাংলা ডে’ উদযাপন করা হবে । সেই প্রত্যাশা করেন অংশ গ্রহণকারীরা ।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *