কাতারে সরকার উৎখাত চেষ্টায় সৌদি জোট


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ  কাতারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী অভিযোগ করেছেন, কাতারের রাজক্ষমতা পরিবর্তনের পায়তারা করছে সৌদি আরব।কাতারের বিরুদ্ধে গত চার মাস অবরোধ জারি রাখার সময় সৌদি আরব এ ধরনের ইঞ্জিনিয়ারিং করে বলে দাবি করেছেন কাতারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আবুদল রহিম আল-থানি।মঙ্গলবার তিনি সিএনবিসিকে এ কথা বলেন। তিনি অভিযোগ করেন, কাতারের শাসন ব্যবস্থা অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে সৌদি আরব।

আল-থানি বলেন, ‘আমরা দেখছি (সৌদি) সরকারি কর্মকর্তারা কাতারের শাসন ক্ষমতা পরিবর্তনের কথা বলছে… আমরা দেখছি, একটি দেশ যাযাবরদের অন্ধকার সময় ফিরিয়ে আনছে এবং কাতারে থাকা যাযাবরদের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে তাদের কাজে লাগাচ্ছে।জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন ও ইরানকে সাহায্য করার অভিযোগে গত ৫ জুন কাতারের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করে অবরোধ আরোপ করে সৌদি আরব, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিশর। এসব অভিযোগ কড়া ভাষায প্রত্যাখ্যান করে কাতার। শিয়াপ্রধান ইরানকে মধ্যপ্রাচ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী বিবেচনা করে সুন্নি সংখ্যাগরিষ্ঠ ও প্রভাবশালী এই আরব রাষ্ট্রগুলো।আল-থানি মনে করেন, কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধ জারি করা সন্ত্রাসের গলা টিপে ধরার জন্য নয়, বরং কাতারকে অসম্মান করা। যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমটিকে তিনি বলেন, ‘যতক্ষণ তারা আমার দেশের বিরুদ্ধে উসকানি ও আমার দেশের শাসন ক্ষমতা পরিবর্তনে মদদ দিয়ে যাচ্ছে, ততক্ষণ সন্ত্রাসে অর্থায়ন বা ঘৃণ বক্তব্য বন্ধে কিছুই করার নেই।তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানির শীর্ষ দেশ কাতার। মধ্যপ্রাচ্যের মধ্যে কাতারেই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় সামরিক ঘাঁটি, যেখানে ১১ হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *