আল-জাজিরা কার্যালয়ে বোমা হামলার আহ্বান জানালেন দুবাইয়ের নিরাপত্তা প্রধান


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
সত্যবাণী

দুবাই: মিশরে বোমা হামলায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে আন্তর্জাতিক সংবাদ নেটওয়ার্ক আলজাজিরার কার্যালয়ে বোমা হামলার আহ্বান জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের নিরাপত্তা প্রধান।মিশরের সিনাই উপদ্বীপের একটি মসজিদে বোমা ও বন্দুক হামলায় উসকানি দেওয়ার জন্য আলজাজিরাকে দায়ী করেন তিনি। এর কঠোর সমালোচনা করে শুক্রবার বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন দুবাইয়ের লেফটেন্যান্ট জেনারেল ধাহি খালফান।তিনি টুইটে বলেন, ‘আইএস, আল কায়েদা, আল নুসরা ফ্রন্ট ও আলজাজিরা- এই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হয়ে বোমা হামলা চালাতে হবে।আরব আমিরাতের প্রাক্তন পুলিশ প্রধান এবং বর্তমানে নিরাপত্তা বাহিনীর প্রধান খালফান টুইটে বলেছেন, ‘আর কতদিন তারা (আল জাজিরা) মিশর ও আরব বিশ্বের নিরাপত্তার বিষয়ে অবৈধ হস্তক্ষেপ করবে?’

পরের টুইটে খালফান আলজাজিরার একটি ছবি পোস্ট করেন। যাতে দেখা যায়, আলজাজিরার লোগোর ওপর ইসলামিক স্টেটের প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদি, প্রাক্তন আল-কায়েদা প্রধান ওসামা বিন লাদেন, হিজুবল্লাহ নেতা হাসান নাসরুল্লাহ এবং ৯১ বছর বয়সি ইসলামি তাত্ত্বিক ইউসুফ আল কারাদাবির ছবি বসানো রয়েছে।এর প্রতিক্রিয়ায় আলজাজিরার আরবি বিভাগের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইয়াসির আবুহিলালাহ বলেছেন, আলজাজিরা ও তার কর্মীদের বিরুদ্ধে যেকোনো ধরনের হামলা হলে তার জন্য পুরোপুরি দায়ী থাকবেন খালফান। শনিবার আবুহিলালাহ ‘আল কাদস’-কে বলেন, ‘খালফানের পোস্টের জবাব দেওয়া দরকার সংযুক্ত আরব আমিরাতের। কারণ খালফান শুধু  একজন আমিরাতি নন, তিনি আমিরাত সরকারের একজন কর্মকর্তাও।আলজাজিরার এই কর্মকর্তা বলেন, ‘তিনি এমন এক সময়ে আলজাজিরার বিরুদ্ধে তার ঘৃণা প্রকাশ করেছেন, যখন সিনাইয়ে ভয়াবহ হামলা হয়েছে।তিনি আরো বলেন, ‘ধাহি খালফান কি সন্ত্রাসকে উসকে দিচ্ছেন? সন্ত্রাসবাদ শুধু একটি অপরাধ সংঘটিত করা নয়, বরং যেকোনো কাজ বা বিবৃতি যা সন্ত্রাসবাদ বা উত্তেজনাকর পরিস্থিতির পথ দেখায়। সন্ত্রাসের উসকানি দেওয়াও সন্ত্রাসবাদ।এর আগেও খালফান বেশ কয়েকবার বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। তবে তার বিরুদ্ধে কখনো কোনো আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

তথ্যসূত্র : আলজাজিরা অনলাইন

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *