সামলান পাসওয়ার্ড


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

ই-মেইল, সোশ্যাল মিডিয়া, অনলাইন ব্যাংকিং, ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট- এসব ব্যবহারে লাগে ‘পাসওয়ার্ড’। যাকে বলা যেতে পারে ‘ডিজিটাল চাবি’। অনলাইনে যে কোনো ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে, সেই ওয়েবসাইটের চাহিদানুযায়ী দিতে হয় ব্যক্তিগত কিছু তথ্য। পরে সে অ্যাকাউন্টে লগইন করতে দরকার হয় ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে জায়গা করে নিয়েছে ইন্টারনেট। প্রতিদিনের কথা, যোগাযোগ, পড়ালেখা, সোশ্যাল মিডিয়াসহ নানা দরকারে আমরা ব্যবহার করছি ডিজিটাল মিরাকল ইন্টারনেট। ফেসবুক, টুইটার, গুগল প্লাস, লিংকড ইন, ইনস্টাগ্রাম- সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম। যেগুলোতে সবাই এখন পার করছেন দিনের অনেকটা সময়। আর জি-মেইল, ইয়াহু মেইল সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ই-মেইল সার্ভিস। সবকিছুতেই থাকে নিজস্ব পাসওয়ার্ড।

তাছাড়া সময়ের সঙ্গে পাল্টাচ্ছে ব্যাংকিং পদ্ধতিও। এটিএম বুথ থেকে টাকা ওঠানো এখন প্রাত্যহিক বিষয়। অনলাইনেও অনেকে সামলাচ্ছেন নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট। আর এতোসবের পাসওয়ার্ড নিয়ে ঝামেলা পোহাতে হয় হরহামেশাই। একজনের পাসওয়ার্ড জেনে হয়তো অন্যজন ফাঁস করে দিতে পারে গোপন তথ্য। যেখানে শিকার হতে পারেন ব্ল্যাকমেইলিংয়ের। আর কেউ হয়তো নিজেই ভুলে গেছেন নিজের পাসওয়ার্ড।

তাই ইন্টারনেটের ভার্চুয়াল জগতে পাসওয়ার্ড নিয়ে বিপদে পড়তে না চাইলে ঠিকঠাক মতো সামলাতে হবে অ্যাকাউন্ট খোলার এ ‘ডিজিটাল চাবি’। পাসওয়ার্ড হতে হবে কঠিন, একইসঙ্গে মনে রাখার মতো।

পাসওয়ার্ডের নিরাপত্তা :

একটি পাসওয়ার্ড যতো বেশি ব্যবহার হবে, সেটি নিরাপদ থাকার সম্ভাবনা ততো কমবে। ২০১৬ সালে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হয়েছে নিচের ২৫টি পাসওয়ার্ড। আপনার পাসওয়ার্ডটি যদি এ তালিকায় থাকে, তবে দ্রুত বদলান।

123456, password, 12345678, qwerty, 12345, 123456789, football, 1234, 1234567, baseball, welcome, 1234567890, abc123, 111111, 1qaz2wsx, dragon, master, monkey, letmein, login, princess, qwertyuiop, solo, passw0rd, starwars.

এক পাসওয়ার্ড কখনোই অন্য জায়গায় ব্যবহার করবেন না। মনে রাখার সুবিধার জন্য অনেকে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে। কিন্তু নিরাপত্তার কথা ভাবলে এটি কখনোই করা উচিত না। কোনো কারণে যদি এক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড কেউ জেনে যায়, অন্য অ্যাকাউন্টগুলোও তখন হুমকির মুখে পড়ে।

ব্যক্তিগত পিসি, ল্যাপটপ, ট্যাব, স্মার্টফোন ছাড়া অন্যকোনো ডিভাইস থেকে যখন নিজের কোনো অ্যাকাউন্টে লগইন করবেন, তখন সজাগ থাকুন। প্রথমত, সেই ডিভাইসে আপনার পাসওয়ার্ড কখনোই সেভ করবেন না। দ্বিতীয়ত, ব্যবহার শেষে অবশ্যই সাইন-আউট বা লগ-আউট করুন। আপনার ব্যক্তিগত ডিভাইসটি যদি অন্যরাও ব্যবহার করেন, সেক্ষেত্রেও এগুলো প্রযোজ্য।

পাসওয়ার্ডে যা ব্যবহার উচিত নয়

পাসওয়ার্ড হিসেবে নিজের নাম, জন্ম তারিখ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম, প্রিয়জনের নাম, জন্মতারিখ, পরিবারের কারো নাম, ব্যবহার করা উচিত না। অন্য কেউ যখন আপনার পাসওয়ার্ড বের করার চেষ্টা করবে, সবার প্রথম এগুলোই হবে তার হাতিয়ার। যদি করতেই হয় কিছুটা ভিন্নভাবে করুন। সেই সঙ্গে পাসওয়ার্ড নিয়মিত বদলান। অন্তত মাসে একবার। তাহলে হ্যাক কিংবা বেহাত হবার ঝুঁকি কম থাকে।

মনে রাখার মতো পাসওয়ার্ড

পাসওয়ার্ড হতে পারে যেকোনো শব্দ। সেটির কিছু অক্ষর পাল্টে দিলে, স্মল-ক্যাপিটাল লেটারের অদল-বদল করলে সেই পাওয়ার্ড হবে কিছুটা কঠিন। যেমন- পাসওয়ার্ড যদি হয় ম্যারাডোনা (Maradona), তাহলে সেটি রাখতে পারেন M@r@don@ বা m4r4don4। এখানে প্রথম অক্ষরটি ক্যাপিটাল লেটারে (M) এবং সবগুলো a অক্ষরের জায়গায় @ লেখা হয়েছে। আর m4r4don4 -এর ক্ষেত্রে সবগুলো a অক্ষরের বদলে 4 লেখা হয়েছে। আবার M@R@D0N@ রাখা যায়। যেখানে সবগুলো a অক্ষরের জায়গায় @ এবং o অক্ষরের বদলে 0 (জিরো), বাকি সব অক্ষর ক্যাপিটালে লেখা হয়েছে।

কঠিন পাসওয়ার্ড তৈরির জন্য ইংরেজি ২৬টি অক্ষর ছাড়াও পাসওয়ার্ডে ব্যবহার করুন কি-বোর্ডের অন্য স্পেশাল ক্যারেক্টারগুলো। যেমন-  ! @ # $ % & + ( )

বাক্য যখন পাসওয়ার্ড

একটি বাক্যও হতে পারে মনে রাখার মতো পাসওয়ার্ড। মানে বাক্যের শব্দগুলোর প্রথম বা শেষ অক্ষর মিলিয়ে তৈরি করা যায় শক্তিশালী পাসওয়ার্ড। সেক্ষেত্রে বাক্য বা কম্বিনেশনটি মনে রাখতে হবে। যেমন- how to create a strong password. এ বাক্যে শব্দগুলোর প্রথম অক্ষর দিয়ে পাসওয়ার্ড বানানো যায় htcasp অথবা HTCASP। আর শব্দগুলোর শেষ অক্ষর দিয়ে পাসওয়ার্ড বানানো যায় woeagd অথবা WOEAGD।

কবিতা বা গানও হতে পারে আপনার চাবি

বাংলা শব্দ যখন ইংরেজি অক্ষরে লেখা হয়, সেটিকে বলা হয় ফনেটিক পদ্ধতি। অনলাইনে যখন ইউনিকোডে বাংলা লেখার কোনো উপায় ছিল না, তখন থেকেই এটি প্রচলিত। বাংলা লেখার পাশাপাশি এখনো সেটি চলছে। গাছ লাগান পরিবেশ বাঁচান- gach lagan poribesh bachan. এভাবে পছন্দের বাংলা গান বা কবিতার লাইন হতে পারে পাসওয়ার্ড। লাইনটি ইংরেজি অক্ষরে ফনেটিকে একটানা লিখলে সেটিই হবে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড।

এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি- amon deshti kothao khuje pabe nako tumi। মিলিয়ে দিলে হবে amondeshtikothaokhujepabenakotumi. এটি মনে রাখা যায় খুব সহজেই, কিন্তু পাসওয়ার্ড হিসেবে খুবই শক্তিশালী।

তাই ডিজিটাল সময়ে অনলাইনে বিচরণের ‘ডিজিটাল চাবি’ পাসওয়ার্ড রাখুন নিরাপদ এবং গোপন। কেননা পাসওয়ার্ড গোপন থাকলেই সেটি নিরাপদ, বেহাত হলেই ঘটতে পারে বিপত্তি।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *