যুব কল্যান পরিষদের বর্ষপূর্তী: সৈয়দপুর আপন মহিমায় উদ্ভাসিত এক জনপদ


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
সত্যবাণী

লন্ডন: কোন রাজনৈতিক সমাবেশ নয়, নয় কোন বিশাল কমিউনিটি প্রোগ্রাম। প্রবাসের মাটিতে নির্দিষ্ট একটি গ্রামের যুবকদের উদ্যোগে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠান, যে অনুষ্ঠানে উঠে এসেছে একটি গ্রামের আপন মহিমা, একটি জনপদের গৌরবময় ঐতিহ্য।
সহস্রাধিক মানুষের উপস্থিতিতে সোমবার লন্ডনে অনুষ্ঠিত সৈয়দপুর যুব কল্যাণ পরিষদের তৃতীয়বর্ষ উদযাপন ও প্রকাশণা উৎসবের অনুষ্ঠানটি ছিলো এমনি একটি ব্যাতিক্রমী আয়োজন, যেখানে অতিথি হিসেবে যেমন ছিলেন কমিউনিটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিরা, তেমনি ছিলেন স্ব স্ব ক্ষেত্রে খ্যাতিমান সৈয়দপুরের সন্তানরা। ছিলেন, লন্ডনে বসবাসরত সৈয়দপুরের যুবক, মুরুব্বিয়ান থেকে শুরু করে সর্বস্তরের অনেকেই, এসেছিলেন লন্ডনের বাইরের শহরগুলোতে বসবাসরত সৈয়দপুরিরাও।
95B3CEDA-5C04-4FCF-8AEA-FAFDEC990123সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের ইম্প্রেশন হলে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন সৈয়দ পুর যুবকল্যাণ পরিষদের সভাপতি সৈয়দ সাদেক আহমদ। সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল সৈয়দের পরিচালনায় ও শেখ ইছহাক রহমানের পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পীকার কাউন্সিলার সাবিনা আক্তার, আসন্ন স্থানীয় নির্বাচনে কনজারভেটিভ দলীয় মেয়র প্রার্থী ডা: আনোয়ারা আলী, পিপলস এলায়েন্স মেয়র প্রার্থী কাউন্সিলার রাবিনা খান, সাংবাদিক মেখলেছুর রহমান চৌধুরী ও লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুবায়ের প্রমূখ। কমিউনিটি ব্যাক্তিত্বদের মধ্যে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম, চ্যানেল আই ইউরোপের এমডি রেজা আহমদ ফয়সল চৌধুরী সুয়েব ও সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইছির মাহমুদ প্রমূখ।

8A5ECC0C-B9AF-474B-991A-56FF705FF087সৈয়দপুরের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিদের মধ্যে বক্তৃতায় ছিলেন লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশা, প্রবীন সাংবাদিক ও কলামিষ্ট ফরিদ আহমদ রেজা, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, সলিসিটর সৈয়দ শাহীন, সত্যবাণীর প্রধান সম্পাদক সৈয়দ আনাস পাশা, সান্ডারল্যান্ড বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল সেন্টারের চেয়ারম্যান সৈয়দ খালেদ মিয়া অলিদ, সাপ্তাহিক সুরমা সম্পাদক আহমেদ ময়েজ, কবি দিলু নাসের, কমিউনিটি নেতা মল্লিক শাকুর ওয়াদুদ, আসন্ন কাউন্সিল নির্বাচনে লেবার দলীয় প্রার্থী লিমা কোরেশী, পিপলস এলায়েন্সের প্রার্থী সৈয়দ জহুরুল হক, সাংবাদিক সৈয়দ শাহ সেলিম আহমদ, রাজনীতিক সৈয়দ কাশেম, সৈয়দপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হাসান, রাজনীতিক তারিফ আহমদ ও মাওলানা নাঈম প্রমূখ।
কোরআন তেলাওয়াতের পর সৈয়দপুর যুব কল্যান পরিষদের কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন সাংবাদিক সৈয়দ শাহ সেলিম আহমদ। সংগঠনের পক্ষে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাজিদুর রহমান, কামরুল সৈয়দ, সৈয়দ আশফাক, সৈয়দ তারেক আহমদ, সৈয়দ জামিল প্রমূখ।

8D7AB0B8-5A6A-4563-89D3-1E3384008EADগ্রামের কৃতি ব্যাক্তিরা নিজেদের বক্তৃতায় এমন একটি মিলন মেলা আয়োজনের জন্য সৈয়দপুর যুব কল্যান পরিষদকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, গ্রামের ঐতিহ্যের উত্তরাধিকার বহন করছে আজকের তরুণরা। পূর্ব প্রজন্মের তৈরী করা গৌরবময় ঐতিহ্য এই প্রজন্মের কাছে অনেকটা আমানতের মত। সুতরাং অতীত ঐতিহ্য নিয়ে শুধু তৃপ্তির ঢেঁকুর তুললেই হবেনা, আমানত হিসেবে প্রাপ্ত ঐতিহ্য রক্ষা করে পরবর্তী প্রজন্মের জন্য অর্জনের নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করতে হবে। তারা বলেন, প্রবাসে বেড়ে ওঠা এই প্রজন্মকে তাঁদের পূর্ব প্রজন্মের গৌরবগাঁথার গল্প শুনিয়ে নিজেরা যাতে নতুন গৌরবগাঁথা তৈরী করতে পারে তারজন্য উৎসাহিত করতে হবে। স্ব স্ব ক্ষেত্রে খ্যাতিমান গ্রামের সন্তানরা বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, শুধু সৈয়দপুর নয়, প্রতিটি এলাকায়ই কমবেশী কিছু আলোকিত মানুষ আছেন, যারা সমাজে আলোর দ্যুতি ছড়াচ্ছেন, এদের সম্মিলিত এই আলোর দ্যুতি পুরো সমাজ আলোকিত করুক, সৈয়দপুর যুবকল্যাণ পরিষদের আজকের এই মিলন মেলায় দাড়িয়ে এমন প্রার্থনাই করছি আমারা।

BBA2C1FA-5A90-4C9B-B634-9A8F49E2BBA1অনুষ্ঠানের অতিথিরা সৈয়দপুরের ইতিহাস, ঐতিহ্যের কথা উল্লেখ করে বলেন, এটি এমন একটি গ্রাম, যে গ্রামটি আপন মহিমায় উদ্ভাসিত। সৈয়দপুরের পরিচয় দেয়ার আগে থানা বা জেলার নাম বলতে হয়না, এমন মন্তব্য করে বক্তারা বলেন, বৃহত্তর সিলেট তথা বাংলাদেশের মানুষের কাছে একটি ঐতিহ্যবাহী গ্রাম হিসেবে রয়েছে সৈয়দপুরের একটি গৌরবোজ্জল পরিচয়।
তারা বলেন, অবিভক্ত ভারত থেকে শুরু করে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ আমলের প্রতিটি রাজনৈতিক, সামাজিক, শিক্ষা  ও
সাংস্কৃতিক আন্দোলনে সৈয়দপুর বারবার স্থান পেয়েছে ইতিহাসের পাতায়। এতদঞ্চলে নারী শিক্ষার প্রসারে এ গ্রামেরই মহিয়সী নারীরা ভূমিকা রেখেছেন প্রশংসনীয়।  তারা বলেন, রাজনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধে সৈয়দপুর সব সময় অন্যান্য এলাকার জনগনের কাছে অনুকরণীয় হয়ে আসছে।

B23A08E3-D79B-421B-AF1D-AA637483DCBEঅতিথিরা বলেন, এটি এমন একটি গ্রাম, যে গ্রামে অসাম্প্রদায়িক প্রগতিশীল, মধ্যপন্থী ও ধর্মীয় রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের সহনশীল সম্প্রীতির সহাবস্থান চলে আসছে যুগ যুগ ধরে। সৈয়দপুরের আলেম ওলামারা এক সময় বৃহত্তর সিলেট তথা সারা বাংলাদেশে ধর্মের শান্তির বাণী প্রচার করেছেন। জাত,পাত, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ ও সম্প্রীতি বজায় রেখে চলার পরামর্শ দিয়েছেন সবাইকে। বাংলাদেশ ও বহির্বিশ্বের সামাজিক, রাজনৈতিক ও রাষ্ট্রিয় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আসনে অতীতে সৈয়দপুরের সন্তানদের ছিলো গৌরবজনক অবস্থান যার ধারাবাহিকতা রয়েছে দেশ-বিদেশে বসবাসরত বর্তমান প্রজন্মের মধ্যেও, এমন মন্তব্যও করেন অতিথিরা। তারা বলেন, সৈয়দপুরের সন্তানরা ব্রিটেনের বাংলা মিডিয়া করছেন আলোকিত, কবি সাহিত্যিকরা আলোর দ্যুতি ছড়াচ্ছেন কমিউনিটিতে। তারা গ্রামবাংলার অনুকরণীয় আদর্শ হিসেবে গ্রামটির জন্য শুভ কামনা রেখে বলেন, সৈয়দপুরের তরুণ প্রজন্ম গ্রামের গৌরবময় ঐতিহ্য ভবিষ্যতের কাছে পৌছে দেবে এটি আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস।

B19C25CB-C00E-4865-896A-181AD85C511Fব্যাতিক্রমী এই মিলন উৎসবে আসন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কাউন্সিলার প্রার্থী সৈয়দপুরের সন্তান লিমা
কোরেশী ও সৈয়দ জহুরুল হক যেমন ভোট উপলক্ষে এলাকাবাসীর দোয়া চান, ঠিক তেমনি তাদের নেতা টাওয়ার হ্যামলেটসের স্পীকার সাবিনা আক্তার এবং পিপলস এলায়েন্সের মেয়র প্রার্থী রুবিনা খানও নিজ নিজ প্রার্থীর জন্য আশির্বাদ চান সৈয়দপুরবাসীর। ব্রিটেনের মত একটি দেশের স্থানীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশের একটি নির্দিষ্ট গ্রামের সমাবেশে এসে মূলধারার রাজনৈতিক দলের স্থানীয় নেতাদের এমন আশির্বাদ কামনা লন্ডনের সামাজিক ও রাজনৈতিক অঙ্গনে গ্রামটির ইতিবাচক ভূমিকারই স্বীকৃতি বলে অনুষ্ঠানে উপস্থিত অনেকেই মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানের শেষে সৈয়দপুর যুব কল্যান পরিষদের তৃতীয় বর্ষপূতি উপলক্ষে একটি তথ্যবহুল ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *