সরিয়ে দেয়া হলো নেপালের সেই বিমানবন্দরের ৬ কর্মকর্তাকে


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
সত্যবাণী

নেপালঃ নেপালের কাঠমান্ডুতে ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল টাওয়ারের (এটিসি) ছয় কর্মকর্তাকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে।বাংলাদেশের ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এই ছয় কর্মকর্তার মানসিক আঘাত প্রশমনে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের উপ মহাপরিচালক রাজন পোখারেল।

মঙ্গলবার দেশটির ইংরেজি দৈনিক মাই রিপাব্লিকা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। তবে বিধ্বস্ত বিমানের পাইলট ও কন্ট্রোল টাওয়ারের কর্মকর্তাদের সর্বশেষ কথোপকথনের যে অডিও রেকর্ড ফাঁস হয়েছে তার সঙ্গে এ  বদলির সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।রাজন পোখারেল বলেন, এটিসির সঙ্গে বিমানের পাইলটের কথোপকথনের যে রেকর্ড ফাঁস হয়েছে এই বদলির কারণ সেটি নয়। তিনি আরো বলেন, ‘মর্মান্তিক ঘটনার পর মানসিক চাপ কমিয়ে আনতে এ পদক্ষেপ এবং এটিই মানসম্মত পদ্ধতি। এটিসি কর্মকর্তারা বেশ বড় একটি দুর্যোগের স্বাক্ষী এবং এঘটনায় তারা হতবিহ্বল। এমন অবস্থায় দুর্ঘটনা পরবর্তী মানসিক চাপ কমাতে  তাদের অন্য বিভাগে বদলি করেছি আমরা।প্রসঙ্গত, সোমবার ৭১ আরোহী নিয়ে ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর দুর্ঘটনায় পড়ে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বিএস ২১১। অবতরণকালে রানওয়ে থেকে ছিটকে বিমানটি খোলা মাঠে গিয়ে পড়ে বিধ্বস্ত হয়। এতে ৫০ আরোহী নিহত হয়েছেন।এছাড়া বিমান বিধ্বস্তে আহত ২১ আরোহী কাঠমান্ডুর কেএমসি হাসপাতাল, নরভিক হাসপাতাল ও ওএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ত্রিভূবন বিমানবন্দরের মহাব্যবস্থাপক রাজকুমার ছেত্রী জানিয়েছেন, বেঁচে যাওয়া ১০ বাংলাদেশির মধ্যে তিন থেকে চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *