আনন্দ র‌্যালিতে সামিল সর্বস্তরের মানুষ


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ বাংলাদেশের নতুন পরিচয় মধ্যম আয়ের দেশ। ১৯৭৫ সালে পরিচয় পাওয়া স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা (এলডিসি) থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এবার থেকে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ।এ অর্জন আত্মমর্যাদার, অহঙ্কারের, গৌরবে আনন্দের বন্যায় ভাসছে পুরো দেশ। এ উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী ঘোষিত কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উৎসব বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে।বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে সংবর্ধনা দেওয়া হয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে দেশের অগ্রযাত্রায়, দেশের মানুষের কল্যাণে জাতির জনকের আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলার মানুষকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না। আজ স্বাধীনতার ৪৭ বছর বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ হওয়ার মাধ্যমে এটাই প্রমাণ হয়েছে, আমাদের কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না। এই অর্জনের জন্য আমি ধন্যবাদ জানাই সারা দেশের মানুষকে। আমরা সরকারে থেকে পথ প্রদর্শক হিসেবে পথ দেখিয়েছি। কিন্তু কৃষক, পেশাজীবী, মেহনতি মানুষ, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সারা দেশের মানুষ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন বলেই এই অর্জন সম্ভব হয়েছে। সবাই মিলে কাজ করেছেন বলেই আজ আমরা ৭.২৮ ভাগে প্রবৃদ্ধি উন্নীত করতে পেরেছি, জনগণের মাথাপিছু আয় বাড়াতে সক্ষম হয়েছি। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টাতেই আমরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে পেরেছি। সেজন্য প্রত্যেককে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

বিকেলে রাজধানীর ৯টি পয়েন্ট থেকে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও তাদের অধীনস্ত সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে দেশের আপামর মানুষ আনন্দ শোভাযাত্রা করবে। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নিজে উপস্থিত থেকে তা উপভোগ করবেন। সরকারের মন্ত্রিপরিষদের সদস্যসহ দেশের সাধারণ মানুষও উপস্থিত থাকবেন।

এরই মধ্যে আনন্দ শোভাযাত্রা অংশ নিতে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে সমবেত হচ্ছেন সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তাদের হাতে নানা রংয়ের বিভিন্ন ব্যানার, প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে।

শোভাযাত্রার বিভিন্ন পয়েন্টগুলো হলো-
রাজধানীর বাংলা একাডেমি ও সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সেতু বিভাগ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, পরিকল্পনা বিভাগ, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, জাতীয় সংসদ সচিবালয় ও নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। শোভাযাত্রাটি বাংলা একাডেমি-দোয়েল চত্বর-আব্দুল গণি রোড-জিপিও হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিম ফটক দিয়ে ঢুকবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ বিভাগ এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সমবেত হচ্ছে শিল্পকলা একাডেমি ও মৎস্য ভবন সংলগ্ন এলাকা। এ শোভাযাত্রাটি শিল্পকলা একাডেমি-মৎস্য ভবন-কদম ফোয়ারা-প্রেসক্লাব-পল্টন-বায়তুল মোকাররম হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর ফটক দিয়ে ঢুকবে।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার বিভাগ, জননিরাপত্তা বিভাগ, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, আইন ও বিচার বিভাগ, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শিশু একাডেমি ও দোয়েল চত্বর সংলগ্ন এলাকা থেকে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর ফটক দিয়ে ঢুকবে।

স্থানীয় সরকার বিভাগ, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, রেলপথ মন্ত্রণালয়, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে শোভাযাত্রাটি জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর ফটক দিয়ে ঢুকবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থাসমূহের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাঠ ও সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে দোয়েল চত্বর-আবদুল গণি রোড-জিপিও হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিম ফটক দিয়ে ঢুকবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নগর ভবন এলাকায় সমবেত হয়ে শোভাযাত্রা নিয়ে নগর ভবন-গোলাপশাহ মাজার-গুলিস্তান মোড়-রাজউক ভবন হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পূর্ব ফটক দিয়ে ঢুকবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রমনা পার্কের দক্ষিণ-পূর্ব অংশে সমবেত হয়ে মৎস্য ভবন-কদম ফোয়ারা-প্রেসক্লাব-পল্টন-বায়তুল মোকাররম হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর ফটক দিয়ে ঢুকবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অন্যান্য ব্যাংক ও সংশ্লিষ্ট আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বাংলাদেশ ব্যাংক চত্বর এলাকায় সমবেত হয়ে শোভাযাত্রা নিয়ে দৈনিকবাংলা মোড় হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পূর্ব ফটক দিয়ে ঢুকবে। শিল্প মন্ত্রণালয় এবং আওতাধীন সংস্থাসমূহের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শিল্প ভবন চত্বর এলাকায় সমবেত হয়ে শিল্প ভবন হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পূর্ব ফটক দিয়ে ঢুকবে।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *