স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ব্রিটিশ এফসিও মিনিষ্টার: বাংলাদেশ একটি মানবিক রাষ্ট্র (ভিডিও)


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

এডিটর-ইন-চিফ
সত্যবাণী

হাউস অফ পার্লামেন্ট, লন্ডন থেকে: ব্রিটিশ ফরেন এন্ড কমনওয়েলথ অফিসের সাউথ এশিয়া বিষয়ক মিনিষ্টার মার্ক ফিল্ড বলেছেন, বাংলাদেশ একটি মানবিক রাষ্ট্র, বাঙালীর মানবিকতা আজ বিশ্বব্যাপি সমাদৃত।
মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুরে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের টেরেস প্যাভিলিয়নে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে উপরোক্ত মন্তব্য করেন ব্রিটিশ এফসিও মিনিষ্টার। মার্ক ফিল্ড যখন বাংলাদেশের প্রশংসা করে বক্তব্য রাখছিলেন, তখন তাঁর পাশেই দাড়িয়েছিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সভাপতি সুলতান শরীফ ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফারুক।
FB53B9BD-AA15-4779-91CF-2A0C27B9AC11উদ্বাস্তু রোহিঙ্গাদের মানবিক দুর্যোগে বাংলাদেশের পাশে দাড়ানোর ভূয়সী প্রশংসা করে ব্রিটিশ এফসিও মিনিষ্টার বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুরদর্শী নেতৃত্ব বিশ্ব সভায় দেশটিকে একটি শ্রদ্ধার আসন এনে দিয়েছে। তিনি বলেন, কক্সবাজারের মত একটি জনবহুল এলাকার মানুষ নিজেদের কষ্ট অগ্রাহ্য করে লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গা শরনার্থীদের আশ্রয় দিতে সরকারকে সহযোগিতার মাধ্যমে প্রমান করেছেন বাংলাদেশ একটি মানবিক রাষ্ট্র, এই ভূখন্ডের মানুষ মানবিক চেতনায় সমৃদ্ধ। জন্মের পর বিগত ৪৭ বছরে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে, এমন মন্তব্য করে মার্ক ফিল্ড বলেন, বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর দুরদর্শী নেতৃত্ব যে রাষ্ট্রটির জন্ম দিয়েছিলো তা আজ বিশ্ব সভায় সমাদৃত। বাংলাদেশে গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে এমন প্রত্যাশা করে ব্রিটিশ এফসিও মিনিষ্টার বলেন, সব দলের অংশ গ্রহনে আগামী নির্বাচন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দেশটির চলমান গণতন্ত্র আরও সমৃদ্ধ হবে এমনটিই আশা করে ব্রিটেন।

C895C18B-B39B-408D-9440-DE6EE5B48EB1অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ব্রিটেন-বাংলাদেশের পারস্পরিক সম্পর্ক ঐতিহাসিক এমন মন্তব্য করে বলেন, আজ থেকে ৪৭ বছর আগে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ব্রিটিশ জনগন ও পার্লামেন্টের এমপিদের দৃঢ় সমর্থন আমাদের ইতিহাসের অংশ। সাম্প্রতিক সময়ে রোহিঙ্গা সমস্যা মোকাবেলায় বাংলাদেশ কঠিন সময় পার করছে, এমন মন্তব্য করে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্মরণকালের ভয়াবহতম এই মানবিক বিপর্যয় বাংলাদেশের একক কোন সমস্যা নয়, এটি আন্তর্জাতিক সমস্যা। নিজেদের অনেক সীমাবদ্ধতা থাকা সত্বেও বাস্তুহারা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশের জনগন বিশ্বব্যাপী মানবিকতার উন্মেষ ঘটার সম্ভাবনার ধার খুলে দিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পেয়েছেন ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’র সম্মান। রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমিতে ফিরে যাওয়ার কোন বিকল্প নেই, এমন মন্তব্য করে শাহরিয়ার আলম বলেন, এ বিষয়ে মায়ানমার সরকারকে বাধ্য করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রাদায়ের চাপ অব্যাহত রাখা খুবই জরুরী। তিনি এ বিষয়ে ব্রিটিশ সরকার ও এমপিদের কার্যকর ভূমিকা কামনা করেন।

F4E44587-7256-484D-835C-CCF88A7832D8ব্রিটিশ ফরেন এন্ড কমনওয়েলথ মিনিষ্টার ছাড়াও শ্যাডো মিনিষ্টারসহ অনুষ্ঠানে আরও প্রায় ৫০ জনেরও অধিক এমপি বক্তব্য রাখেন। এদের মধ্যে ৫৩ জন আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে নিজেদের উপস্থিতি স্বাক্ষর বইয়ে রেকর্ডভুক্ত করেন। অধিকাংশ এমপিই বক্তব্যের শুরুতে বাংলায় শুভেচ্ছা জানান ও বক্তৃতা শেষ করেন জয়বাংলা বলে। এমপিরা তাদের বক্তৃতায়, বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ইস্যুতে বাংলাদেশের ইতিবাচক ভূমিকার কথা উল্লেখ করে দেশটির বর্তমান সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তারা ব্রিটেনের বাংলাদেশী কমিউনিটিরও ভূয়সী প্রশংসা করেন তাদের বক্তৃতায়। বলেন, মাল্টিকালচারেল ব্রিটিশ সোসাইটিতে বাংলাদেশী কমিউনিটির অবস্থান আজ খুবই সমৃদ্ধ। রাজনীতি, শিক্ষা, সমাজসেবাসহ ব্রিটেনের বিভিন্ন সেক্টরের উচ্চ পর্যায়ে ব্রিটিশ-বাংলাদেশীদের অবস্থান আজ চোখে পড়ার মত।

7E4A4159-321E-4162-9200-2588E027C38Dসঙ্গীতা আহমেদ ও সৈয়দা সায়মা আহমেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনায় ব্রিটেনে বাংলাদেশের হাই কমিশনার নাজমুল কাওনাইনও বক্তব্য রাখেন।
ব্রিটিশ এমপিদের মধ্যে যারা বক্তব্য রাখেন তারা হলেন, শ্যাডো সেক্রেটারী অফ স্টেট ডেভি আব্রাহাম, পার্লামেন্টারী আন্ডার সেক্রেটারী মাইক্যাল এলিজ এমপি, শ্যাডো মিনিষ্টার চি অনুরাহ এমপি, শ্যাডো লিডার অব দ্যা হাউজ অফ কমন্স ভ্যালেরী ভাজ এমপি, শ্যাডো সেক্রেটারী অব স্টেট জনথন আশওয়ার্থ এমপি, শ্যাডো এসএনপি স্পোকসপার্সন জোয়ান্না চেরী এমপি, শ্যাডো মিনিষ্টার জুলিয়ে কুপার এমপি, শ্যাডো মিনিষ্টার ফ্যাবিয়ান হ্যামিল্টন এমপি, শ্যাডো চ্যান্সেলার অব এক্সচেকার জন ম্যাকডনাল এমপি, আন মেইন এমপি, জোয়ানা চ্যারি এমপি, মিসেস হেলেন গ্রান্ট এমপি, চিয়ন ওয়ারা এমপি, কিয়ার স্টার্মার এমপি, জন স্টিফেন্স এমপি, ক্রিশ্চিয়ান ম্যাথসন এমপি, মোহাম্মদ ইয়াসীন এমপি, জেসিকা মর্ডান এমপি, জুডিথ কউমিন্স এমপি, জিম ম্যাকমোহান এমপি, পল স্কালি এমপি, মাইক ফির এমপি, উইল কুইন্স এমপি ও মার্ক টামি এমপি প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জালাল উদ্দিন, যুগ্ম সম্পাদক মারুফ চৌধুরী ও আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *