যুক্তরাজ্য জাসদের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

কমিউনিটি করেসপন্ডেন্ট
সত্যবাণী

লন্ডন: বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৪৭তম বার্ষিকী উদযাপন  করেছে যুক্তরাজ্য জাসদ। গত ২৮শে মার্চ পুর্ব লন্ডনের ব্লু মুন মিডিয়া একাডেমীতে এ উপলক্ষে আয়োজন করা হয় এক বিশেষ অনুষ্ঠান। দু’পর্বে বিভক্ত অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিল স্বাধীনতা দিবসের আলোকে আলোচনা এবং ২য় পর্বে ছিল গনসংঙ্গীত ।

যুক্তরাজ্য জাসদের সহ সভাপতি মুজিবুল হক মনির সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আবুল মনসুর লিলুর পরিচালনায় আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানে অতিথি বক্তা হিসাবে উপস্হিত ছিলেন ন্যাপের সভাপতি, প্রবীন বাম রাজনীতিক আব্দুল আজিজ ও যুক্তরাজ্য প্রগতিশীল ফোরামের আহবায়ক ডঃ মখলিসুর রহমান মুকুল। সভার শুরুতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল শহীদদের সম্মানার্থে ১ মিনিট দাড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয় ।

326ADF26-D80C-4F34-800D-166A855E3935বক্তারা স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, শত বাধা অতিক্রম করে বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে । চাওয়া পাওয়ার হিসাবে হয়ত অনেক কিছুই আমরা পাইনি, কিন্তু এর পরও আমরা গর্বিত হই, যখন দেখি উন্নত বিশ্বের নামী দামী শপিং মলের দোকান গুলিতে বাংলাদেশের তৈরী পোশাক এবং অন্যান্য পন্য বিক্রী হচ্ছে । তারা বলেন, যে বাংলাদেশ এক সময় ‘বটমলেস বাসকেট’ (তলা বিহীন ঝুড়ি) হিসাবে পশ্চিমা বিশ্বের কাছে পরিচিত ছিল, সেই বাংলাদেশ আজ খাদ্যে দেশের চাহিদা পুরন করে বিদেশে রফতানী করার মত যোগ্যতা অজর্ন করেছে,  স্বল্প উন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হয়ে এখন মধ্যম আয়ের দেশ হওয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে।  বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন এবং স্বল্প আয়ের মানুষদের আয় অতিথের চেয়ে এখন অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে, এমন মন্তব্য করে বক্তারা বলেন, এই সাফল্যের কৃতিত্ব অবশ্যই বর্তমান সরকারের। কারন এই সরকারের নেতৃত্বেই উন্নয়নের মহাসড়কে দৌড়াচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী দিনে বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষ শক্তির ঐক্যের উপর গুরুত্বারোপ করে তারা বলেন,  ঐক্যে ফাটল ধরে এমন  বক্তব্য বিবৃতির বিষয়ে বড় দলসহ জোটের সব শরিক দলের নেতাকর্মীদের সচেতন থাকতে হবে।

বক্তারা আরও বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল নয় মাসের যুদ্ধের মধ্য দিয়ে, কিন্তু এর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল বহু বছর আগ থেকে । ৬০ এবং ৭০ দশকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে যে কয়েকজন তৎকালীন ছাত্রনেতা (৬২, ৬৯, ৭০ এবং সবর্শেষ ৭১ এর) অগ্নিঝরা দিনগুলিতে বাংগালী জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য সংগঠিত করার কাজে নিয়োজিত ছিলেন, তাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন সিরাজুল আলম খাঁন (দাদা ভাই হিসাবে যিনি সবার কাছে তখন পরিচিত ছিলেন ) । সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে অতি সম্প্রতি তাকে ষড়যন্ত্রকারী বলে আখ্যায়িত করায় বক্তারা সরকারের এই বক্ত্যব্যের তীব্র সমালোচনা করেন ।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, ন্যাপের সভাপতি আব্দুল আজিজ, যুক্তরাজ্য প্রগতিশীল ফোরামের আহবায়ক ডঃ মখলিসুর রহমান মুকুল, জাসদ সভাপতি হারুনুর রশীদ, সহ সভাপতি মজিবুল হক মনি, সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, গ্রেটার লন্ডন জাসদের সভাপতি সৈয়দ বদরুল হক এনাম, যুক্তরাজ্য জাসদের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহজাহান, প্রজন্ম ৭১’ যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি বাবুল হোসেন, ফ্রেন্ডস অব বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক গোলাম আকবর মুক্তা , যুক্তরাজ্য জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন খাঁন শামীম ও কাজী দিলওয়ার হোসেন, গ্রেটার লন্ডন জাসদের সাধারন সম্পাদক শাবুল সামছুজ্জামান, যুক্তরাজ্য জাসদের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহীন হোসেন, যুক্তরাজ্য জাসদের কার্যকরী কমিটির সদস্য ফখরুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য জাসদ নেতা সাংবাদিক অলিউর রহমান অলি, যুক্তরাজ্য নারী জোটের যুগ্ম আহবায়ক রেহানা বেগম প্রমুখ। উপস্হিত ছিলেন যুক্তরাজ্য জাসদের সহ সভাপতি আসাদুল হক আজাদ, যুগ্ম সম্পাদক মাসুক হোসেন, রয়েল মেইলের রাজনীতি বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ আবুল বশর মাসুম ও যুক্তরাজ্য জাসদের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দা বিলকিস মনসুর প্রমুখ ।

অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে ছিল গনসংঙ্গীত এং হালকা খাবার পরিবেশন। যুক্তরাজ্য জাসদের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহিন হোসেনের পরিচালনায় সংঙ্গীত পরিবেশন করেন মজিবুল হক মনি, শাহীন হোসেন ও অমিত দে প্রমুখ ।

 

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *