তিনজনকে কিছু তথ্যের জন্য আনা হয়েছিল, আটক করা হয়নি: ডিবি


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা সংবাদ সম্মেলন করে দুই দিনের মধ্যে মামলা প্রত্যাহারের আল্টিমেটাম দেওয়ার পর ‘জিজ্ঞাসাবাদ’ করে ছেড়ে দিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ।সোমবার বেলা ১১টার দিকে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে আন্দোলনের নেতারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সংবাদ সম্মেলন করেন। তারা বলেন, ক্যাম্পাসে সংঘর্ষ ও উপাচর্যের বাসভবনে হামলার ঘটনায় দায়ের করা সব মামলা দুই দিনের মধ্যে প্রত্যাহার না করলে আবার রাজপথে নামবেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনের পর তিন যুগ্ম আহবায়ক নূরুল হক নূর, ফারুক হাসান, মুহম্মদ রাশেদ খানকে ডিবি পুলিশ ধরে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়কদের অন্যতম নূরুল হক নূর।এদিকে গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার আব্দুল বাতেন বলেন, তাদের তদন্তের প্রয়োজনে নিয়ে আসা হলেও জিজ্ঞাসাবাদের পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় বিভিন্ন ‘সহিংসতার’ ঘটনায় তথ্য-উপাত্ত যাচাই বাছাই করার জন্য তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে কোটা আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক নূরুল হক নূর বলেন, কোটা সংস্কার আন্দােলনের ৩ জন যুগ্ম আহ্বায়ককে সাদা পোশাকধারী পুলিশ তুলে নিয়ে যাওয়ার পর ছেড়ে দিয়েছে।সোমবার দুপুর ১টার দিকে ঢাবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ জানান তিনি।ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে থেকে তুলে নিয়ে যায় তাদের।নূরুল হক নূর জানান,ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) কোটা সংস্কার আন্দােলনে আহত কর্মীদের দেখতে যাচ্ছিলেন তারা। ইমার্জেন্সি বিভাগের সামনে থেকে দু’টি হাইয়েস মাইক্রোবাস ও কয়েকটি মোটরসাইকেলে এসে তাদেরকে তুলে নেয়।তুলে নিয়ে যাওয়া তিনজনের মধ্যে তিনিও ছিলেন বলে জানান।তিনি জানান,মাঝপথে নিয়ে চোখ বেঁধে নেয়া হয়।পরে চোখ খুলে দেখেন তারা ডিবি অফিসে আছে।সেখানে বলা হয় তাদের ওপর হামলার আশঙ্কা ছিল এবং ভিসির বাসভবনে হামলার ভিডিও দেখাতে তুুলে আনা হয়েছে। কিন্তু তাদেরকে কোনো ভিডিও দেখানো হয় নি।তাদের বলা হয় প্রয়োজনে আবার ডাকা হবে।তিনজনকে তুলে নিয়ে যাওয়ার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ মিছিল করেছে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা।নূরুল হক নূর জানান,আবার যদি এভাবে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় তবে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেওয়া হবে। অন্যদিকে,রাশেদ খানের বাবাকে ঝিনাইদহে আটক করা হয়েছে বলে নিন্দা জানানো হয়।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *