মেয়র জন বিগসের নতুন ক্যাবিনেট


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

প্রেস রিলিজ ডেস্ক
সত্যবাণী

লন্ডন: বাংলাদেশী অধ্যুষিত হ্যামলেট কাউন্সিলের নবনির্বাচিত মেয়র জন বিগস তাঁর নতুন ক্যাবিনেট সদস্যদের নাম ঘোষণা করেছেন। ১৪ মে সোমবার মালবারী প্লেইসে লেবার গ্রুপের এজিএমে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্যাবিনেট সদস্যদের নাম ও পদ ঘোষণা করেন পূনর্নির্বাচিত মেয়র জন বিগস। লেবার পার্টির নবনির্বাচিত ৪২জন কাউন্সিলার এতে উপস্থিত ছিলেন ।

উল্লেখ্য, গত ৩মে অনুষ্ঠিত স্থানীয় নির্বাচনে জন বিগস ৪৪হাজার, ৮শ, ৪৫ভোট পেয়ে মেয়র পদে দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হন। কাউন্সিলের মোট ৪৫ জন কাউন্সিলারের মধ্যে লেবার পার্টি ৪২ টি কাউন্সিলার পদ লাভ করে।

সোমবার ঘোষিত ক্যাবিনেটে ৩ জনকে ডেপুটি মেয়র পদে পদায়ন করা হয়েছে । এরা হলেন কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম, কাউন্সিলার রেচেল ব্লেইক ও কাউন্সিলার আসমা বেগম।  ক্যাবিনেটে নতুন যুক্ত হয়েছেন ৩জন।এরা হলেন কাউন্সিলার মতিনুজ্জামান, কাউন্সিলার ড্যানি হ্যাসেল ও কাউন্সিলার ক্যানডিটা ডোনাল্ড।৯সদস্য বিশিষ্ট ক্যাবিনেটের ৫জনই মহিলা ও ৪জন বিএমই কমিউনিটির।এছাড়া কাউন্সিলার আয়াছ মিয়াকে স্পীকার ও ভিক্টোরিয়া অবাজিকে ডেপুটি স্পীকার হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে ।

ক্যাবিনেটের সদস্য হিসেবে যারা দায়িত্ব পেয়েছেন তারা হলেন:

নির্বাহী মেয়র জন বিগস, ডেপুটি মেয়র (স্ট্যাটিটিউরি ও হাউজিং) কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম, ডেপুটি মেয়র (রিজেনারেশন) কাউন্সিলার  রেচেল ব্লেইক ,ডেপুটি মেয়র (কমিউনিটি সেফটি এন্ড ইকুয়ালিটি) কাউন্সিলার আসমা বেগম, কাউন্সলার ড্যানি হ্যাসেল (চিলড্রেন স্কুল এন্ড ইয়াং পিপল), কাউন্সিলার আমিনা আলী (কালচার,বেস্কিট এন্ড আর্টস), কাউন্সিলার ডেভিড এডগার (এনভায়রনমেন্ট এন্ড এয়ার ইকুয়ালিটি), কাউন্সিলার ক্যানডিডা রোনান্ড (রিসোর্সেস এন্ড ভলান্টিয়ার সেক্টর), কাউন্সিলার মতিনুজ্জামান (ওয়ার্ক এন্ড ইকোনোমিক গ্রোথ), কাউন্সিলার ডেনিস জোনস (এডাল্ড হেলথ এন্ড ওয়েলবিং)।

এছাড়া তিন বিষয়ের তিনজনকে মেয়র এডভাইজার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন।

তারা হলেন, কাউন্সিলার সাবিনা আলী (কমিউনিটি এন্ড ভলান্টারী সেক্টর), কাউন্সিলার আসমা ইসলাম (ইয়ং পিপল) এবং ইভ ম্যাককুলিয়ান (টেকলিং পোভার্টি এন্ড ইনইকুয়ালিটি)।

নতুন ক্যাবিনেট সম্পর্কে মেয়র তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘টাওয়ার হ্যামলেটের বাসিন্দারা পুনরায় আমার উপর আস্থা রাখায় বাসিন্দাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।তিনবছর আগে বিশৃঙ্খল অবস্থায় আমাকে দায়িত্ব নিতে হয়েছিল । এরপরও বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি’। মেয়র আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘সাফল্যের সেই ভিত ধরে নতুন ক্যবিনেট কাউন্সিলকে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবেন, এমনটিই আমার বিশ্বাস’। তিনি বলেন, ‘এই ক্যাবিনেটে আমাদের বারার বৈচিত্রের প্রতিফলন যেমন রয়েছে, তেমনি লেবার গ্রুপেও রয়েছেন অনেক মেধাবী মুখ’।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *