সাবেক ছাত্রদল অর্গানাইজেশন স্পেন শাখার প্রতিবাদ সভা ও ইফতার মাহফিল


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

কবির আল মাহমুদ
সত্যবাণী

মাদ্রিদ,স্পেন থেকেঃ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ও ক্রসফায়ার এর নাম নিরীহ মানুষকে হত্যার প্রতিবাদে  সাবেক ছাত্রদল অর্গানাইজেশন স্পেন শাখার এক প্রতিবাদ সভা ও ইফতার মাহফিল এর আয়োজন করা হয়।গত কাল বুধবার (১৩জুন ) সাবেক ছাত্রদল অর্গানাইজেশন স্পেন শাখার  সভাপতি আসাদ আলীর সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায়  প্রধান অতিথি ছিলেন স্পেন বিএনপির  সাংগঠনিক ও  সাবেক ছাত্রদল অর্গানাইজেশন এর কেন্দ্রীয় আহবায়ক  সম্পাদক আবু জাফর রাসেল।সভায় বক্তারা বলেন খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের প্রতীক।গায়ের জোরে তাকে আটক রাখা মানে হলো- গণতন্ত্র পুরোপুরি ধ্বংস করা;মানুষের অধিকার, মানুষের ভোটাধিকার নষ্ট করে এক ব্যক্তির শাসন নিশ্চিত করা।জাকির চৌধুরী ও আবিদুর রহমান জসিম এর পরিচালনায় বক্তব্য দেন  ৯০ এর ছাত্রনেতা মুজাক্কির আহমেদ,বিনপি নেতা  জেন্স সিপার আহমেদ,স্পেন বিএনপির  যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হুমায়ুন কবির রিগান,সাঈদ মিয়া,আলী আহমেদ চৌধুরী,মাহবুব এনাম,আকাশ ফাহমিদ,আকতার হোসেন,হাসান আহমেদ,লুৎফুর রহমান,সৌরভ আহমেদসহ আরো অনেকে l

প্রধান অতিথি  আবু জাফর রাসেল বলেন,বলেন,সরকার ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটি পাতানো নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করছে। বেগম জিয়াকে জেলে রেখে নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চাচ্ছে। তবে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না।দেশের মানুষ কঠোর আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।আবু জাফর রাসেল বলেন,কথিত বন্দুকযুদ্ধের নামে চলছে দেশব্যাপী মানুষ হত্যার বিভিষীকা। আসন্ন আন্দোলন সম্পর্কে কম্পমান হয়েই মানুষ হত্যায় লিপ্ত হয়েছে সরকার,শুধুমাত্র সংগ্রামী জনগণকে ভীত করা।মাদকবিরোধী যুদ্ধের আড়ালে চলছে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড।তবে জনগণ এই সরকারের বিরুদ্ধে আপোষহীন দেশপ্রেম, অপরিসীম সাহস,সর্বোচ্চ আত্মত্যাগের মানসিকতা ও শিসাঢালা প্রত্যয় নিয়ে নেতাকর্মীরা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য মাঠে নামবে। তিনি ঈদুল ফিতরের আগেই বেগম জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

সভাপতির  আসাদ আলী বলেন,জেলখানায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে ন্যূনতম মানবিক আচরণও করা হচ্ছে না।আমরা জেনেছি পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে যেখানে খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে,সেখানে কোন জেনারেটর নেই।প্রায় বিদ্যুৎ চলে যায়।বিদ্যুৎ চলে গেলে মোমবাতি ও হাতপাখা দিয়ে চলতে হয় খালেদা জিয়াকে।এই যে অমানবিকতা ও হৃদয়হীন আচরণ,এর কোনও তুলনা নেই।তিনি এমন অসুস্থ যে তিনি ঠিকমতো হাঁটতে পারছেন না।প্রতি রাতে তার জ্বর আসছে।এটা যেকোনও সুস্থ মানুষের জন্যও সংকটাপন্ন অবস্থা।আমরা অবিলম্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবি জানাচ্ছি।পরে জিয়ার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা,বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা এবং দ্রুত কারামুক্তি,তারেক রহমানের সুস্থতা কামনা করে  বিশেষ মুনাজাত করেন মাহবুব আহমেদ।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *