সুরমা সম্পাদককে ঘিরে আড্ডা: কমিউনিটি সম্পৃক্ততাই বাংলা মিডিয়ার টিকে থাকার অবলম্বন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
সত্যবাণী

লন্ডন: ব্রিটেনের অন্যতম প্রাচীন বাংলা সাপ্তাহিক ‘সুরমা’র নবনিযুক্ত সম্পাদক প্রবীন সাংবাদিক ও কলামিষ্ট ফরিদ আহমদ রেজাকে ঘিরে এক চা-আড্ডায় বিলেতে বাংলা পত্রিকার উত্তাণ  সময়কার স্মৃতিচারণ করেছেন বাংলা মিডিয়ার সিনিয়র সাংবাদিকরা। কমিউনিটির তৃতীয়/ চতুর্থ প্রজন্মের আজকের এই সময়ে বাংলা মিডিয়ার অস্থিত্ব কতটুকু টিকে থাকবে এনিয়েও আলোচনা হয় আড্ডায়। পাঠক সম্পৃক্ততাই হতে পারে বাংলা মিডিয়ার টিকে থাকার অবলম্বন, আড্ডায় এমন অভিন্ন মতামতও উঠে আসে সমবেত সাংবাদিকদের কাছ থেকে।

সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণের পর বৃহস্পতিবার বিকেলে পূর্ব লন্ডনের সুরমা কার্যালয়ে ব্রিটেনের সিনিয়র সাংবাদিকদের এক চা-আড্ডায় আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন সম্পাদক ফরিদ আহমেদ রেজা। প্রাণবন্ত এই অনানুষ্ঠানিক আড্ডায় উঠে আসে ব্রিটেনের বাংলা মিডিয়ার উত্তাণপর্ব ও ভবিষ্যতে টিকে থাকার চ্যালেঞ্জসহ বিভিন্ন প্রসঙ্গ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক ও কলামিষ্ট রেনু লুৎফা, সুরমা’র দুই সাবেক সম্পাদক সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাসন ও পত্রিকার সম্পাদক ইমদাদুল হক চৌধুরী, সুরমার সাবেক ও পত্রিকার বর্তমান প্রধান সম্পাদক মোহাম্মদ বেলাল আহমদ, সত্যবাণী’র প্রধান সম্পাদক সৈয়দ আনাস পাশা, সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইসির মাহমুদ, বাংলা পোষ্ট সম্পাদক তারেক চৌধুরী, কলামিষ্ট ও মিডিয়া গবেষক ফারুক আহমদ, সাংবাদিক আব্দুল মুনিম জাহেদী ক্যারল, আকবর হোসেন, চ্যানেল এস’র সিনিয়র রিপোর্টার ইব্রাহিম খলিল, সাংবাদিক আব্দুল হাই সন্জু, প্রেস ক্লাব সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সালেহ আহমেদ, ওয়ান বাংলার সম্পাদক কয়েস আলী, সানরাইজ টুডে’র সম্পাদক এনাম চৌধুরী এবং সুরমা’র সাবেক সম্পাদক আহমেদ ময়েজ ও বার্তা সম্পাদক কাইয়ুম আব্দুল্লাহ প্রমূখ। 

9F6279BE-C05B-4299-AB79-0721B9EBBAC7সুরমা’র সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেয়ায় ফরিদ আহমদ রেজাকে ধন্যবাদ জানিয়ে আড্ডায় উপস্থিত সম্পাদক ও সাংবাদিকবৃন্দ বলেন, প্রবীন এই সাংবাদিকের সম্পাদক হিসেবে সুরমায় যোগদান বিলেতের বাংলা মিডিয়া অঙ্গনকে নিঃসন্দেহে আরও সমৃদ্ধ করবে। আলোচকরা জনাব রেজার সাংবাদিকতা পেশার অতীত স্মরণ করে বলেন, একজন মেধাবী ও সজ্জন সাংবাদিক হিসেবে ফরিদ আহমদ রেজা সব সময়ই সবার কাছে শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন এবং এখনও আছেন। সুরমা সম্পাদক হিসেবে লন্ডনের বাংলা মিডিয়ায় তাঁর সম্পৃক্তি এই অঙ্গনকেই সমৃদ্ধ করবে, এমন মন্তব্য করে তারা বলেন, তাঁর প্রজ্ঞা ও অভিজ্ঞতা বিলেতের সাংবদিকদের মধ্যকার পারস্পরিক সম্প্রীতি ও সহাবস্থান টিকিয়ে রাখতে ভূমিকা রাখবে। 

প্রবীন কলামিষ্ট রেনু লুৎফা ফরিদ আহমদ রেজাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, কমিউনিটির পুরনো প্রজন্মের পাঠকের সংখ্যা কমছে। এটি বিলেতের বাংলা সংবাদ মাধ্যমের টিকে থাকার চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়  জনাব রেজার দীর্ঘ অভিজ্ঞতা নিশ্চয়ই নিয়ামক ভূমিকা রাখবে।

সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যমের জবাবদিহীতা পাঠকের কাছে, এমন মন্তব্য করে সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাসন সুরমা সম্পাদক থাকাকালীন তাঁর সময়কার বিভিন্ন ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন। তিনি বলেন, যে ভুলগুলো সম্পাদক হিসেবে নিজের চোখে পড়েনি, সেগুলোই পাঠক ফোন করে ধরিয়ে দিতেন আমাদের। পেইষ্টিং এর যুগে সীমিত রিসোর্সের কারনে কোন কোন সময় পুরোনো ছবি বা ফিচার দিয়ে পত্রিকা প্রেসে পাঠিয়ে দায় সারতে চাইলেও রেহাই মিলতোনা। চালাকী ধরা পড়ে যেত পাঠকের কাছে। তিনি ফরিদ আহমদ রেজাকে সুরমা সম্পাদক পদে স্বাগত জানিয়ে বলেন, জীবনের রঙ্গীন সময়ের কর্মস্থল সুরমা’য় ফরিদ আহমদ রেজার মত গুনি ব্যাক্তি আজ সম্পাদক, বিষয়টি আমাদের জন্য অবশ্যই ভালো লাগার। 

বেলাল আহমদ ফরিদ আহমদ রেজাকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, বাংলা মিডিয়ার অস্থিত্ব ঝুকির এই সময়ে রেজা ভাই’র সম্পৃক্ততা আমাদের সাহস যোগাচ্ছে। আসলে সংকট-সম্ভাবনা নিয়েই আমাদের টিকে থাকতে হবে।

বিলেতের বাংলা মিডিয়ার সাংবাদিকদের পারস্পরিক সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে সুরমার নতুন সম্পাদক জনাব রেজার অভিজ্ঞতালব্দ ভূমিকা কামনা করে ইমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, রেজা ভাই এই দায়িত্ব পালনে উপযুক্ত ব্যক্তি। সুরমার সেই সোনালী দিনগুলো নিজের জীবনের একটি উজ্জল সময় এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘পাঠকের সাথে সুরমার যে আত্মিক সম্পর্ক রেজা ভাই নিশ্চয়ই সেটি টিকিয়ে রাখবেন। 

সৈয়দ আনাস পাশা ফরিদ আহমদ রেজাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, সাংবাদিক কখনও সাবেক বা অবসরপ্রাপ্ত হয়না। ফরিদ আহমদ রেজা এক সময় ছিলেন সক্রিয় সাংবাদিক। পরবর্তীতে কোন দায়িত্বে না থাকলেও বিলেতের বাংলা মিডিয়া জগতে কলামিষ্ট হিসেবে তাঁর পদচারণা নিয়মিতই ছিলো। সুরমার সম্পাদক হয়ে তিনি তাঁর আগের সক্রিয়তায় ফিরে আসলেন। তাঁকে অভিনন্দন।

শুধু প্রেস ক্লাবের উপর নির্ভর না করে প্রতিটি মিডিয়া হাউসই বিভিন্ন ইস্যুতে মাঝে মাঝে সাংবাদিক আড্ডার আয়োজন করুক, বাংলা পোষ্ট সম্পাদক তারেক চৌধুরী তাঁর এমন ইচ্ছের কথা জানান সুরমা সম্পাদকের আড্ডায়। তিনি বলেন এতে সাংবাদিকদের পারস্পরিক সম্পর্ক ঝালাই হয়। দায়িত্ব নিয়েই রেজা ভাই আড্ডা আয়োজন করে সেটিরই শুভ সূচনা করলেন বলে আমি ধরে নিচ্ছি।

তাইসির মাহমুদ ফরিদ আহমদ রেজাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ফরিদ আহমদ রেজা আমাদের অনুকরনীয় অগ্রজ সাংবাদিক। সুরমা সম্পাদকের দায়িত্ব নিয়ে তিনি আমাদের আরও কাছে আসলেন। বাংলা মিডিয়ার টিকে থাকার আজকের এই সংগ্রামে তাঁর দীর্ঘ অভিজ্ঞতা নিশ্চয়ই আমাদের পথ দেখাবে।

ইব্রাহিম খলিল সুরমা’য় আরও বেশি বেশি কমিউনিটি নিউজ দাবি করে সেদিকে নতুন সম্পাদকের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

অাড্ডায় উপস্থিত সকলের শুভ কামনার জবাবে দায়িত্ব পালনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন ফরিদ আহমদ রেজা। তিনি বলেন, আপনাদের পরামর্শ ও সাহায্য নিয়েই কমিউনিটি মূখপত্র হিসেবে প্রাচীন পত্রিকা সুরমাকে এগিয়ে নিতে চাই। তিনি আড্ডায় উপস্থিত হওয়ায় সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠান শেষে এনাম চৌধুরীর আনা ফুলের তোড়া হাতে তুলে দিয়ে সুরমা সম্পাদক হিসেবে ফরিদ আহমদ রেজাকে অভিনন্দন জানান সবাই।

পায়েশ, মিষ্টি ও চা পানে আপ্যায়ন করা হয় আড্ডায় উপস্থিত সাংবাদিকদের।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *