জন্মভূমির পথে কায়েসের মরদেহ, শেষ শয্যা হবে মা-বাবার পাশে


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

সৈয়দ আনাস পাশা, এডিটর-ইন-চিফ
সত্যবাণী

লন্ডন: ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছে ব্রাজিলে বাংলাদেশের সদ্য প্রয়াত রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েসের মরদেহ। মরদেহের সাথে ঢাকা যাচ্ছেন স্ত্রী নাঈমা কায়েস, মেয়ে মানসী ও মাধুরী এবং ব্রাসিলিয়া বাংলাদেশ দূতাবাসের চার্য দ্যা এফেয়ার্স সুমনা ইকবাল। সত্যবানীকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ব্রাসিলিয়া বাংলাদেশ দূতাবাস।
স্থানীয় সময় শনিবার ভোর রাত ১.৩০ মিনিটে কাতার এয়ার ওয়েজের একটি ফ্লাইট মিজারুল কায়েসের মরদেহ নিয়ে ব্রাজিলের সাওপালো বিমান বন্দর ত্যাগ করে। এর আগে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭.৪০ মিনিটে একটি অভ্যন্তরীন ফ্লাইটে ব্রাসিলিয়া থেকে সাওপাওলো বিমান বন্দরে এসে পৌছে মরহুম কায়েসের মরদেহ।  দীর্ঘ জার্নি শেষে ২০ মার্চ সোমবার ভোররাতে প্রয়াত রাষ্ট্রদূতের মরদেহ পৌছবে ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে। ঐদিনই সকাল সাড়ে আটটায় পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হবে সাবেক এই পররাষ্ট্র সচিবের প্রথম নামাজে জানাজা। ২১ মার্চ মঙ্গলবার হেলিকপ্টার যোগে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া গ্রামের বাড়ীতে। সেখানে অনুষ্ঠিত হবে মরহুমের শেষ জানাজা। এরপর আবার ঢাকায় ফিরিয়ে আনা হবে প্রয়াত মিজারুল কায়েসের মরদেহ এবং বনানীতে মা-বাবার কবরের পাশে চীরনিদ্রায় শায়িত করা হবে  দেশ-বিদেশে সমাদৃত বর্নাঢ্য কুটনৈতিক জীবনের অধিকারী মিজারুল কায়েসকে।
IMG_2021এর আগে বুধবার পূর্ণ সামরিক মর্যাদায় বাংলাদেশের সদ্য প্রয়াত রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েসকে বিদায় জানায় ব্রাজিল। সামরিক বাহিনীর আনুষ্ঠানিক গার্ড অব অনার ও গান স্যালুটের মাধ্যমে ব্রাজিল সরকারের পক্ষ থেকে শেষ বিদায় জানানো হয় বাংলাদেশের প্রয়াত এই রাষ্ট্রদূতকে। বুধবার স্থানীয় সময় সকালে সেনা সদস্য পরিবেষ্টিত হয়ে প্রয়াত মিজারুল কায়েসের শবদেহ নিয়ে যাওয়া হয় সামরিক সম্মাননাস্থল অরাটোরিও ডু সলডাডোতে। মরদেহ অনুষ্ঠানস্থলে পৌছলে ব্রাজিল সামরিক বাহিনীর মুসলিম সদস্যরা মিজারুল কায়েসের মরদেহ কাধে করে বয়ে নিয়ে নির্ধারিত স্থানে রাখেন। সেখানে ব্রাজিল সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে যখন বাংলাদেশের প্রয়াত রাষ্ট্রদূতকে গার্ড অব অনার জানানো হচ্ছিল, তখন মুসলিম ব্রাজিলিয়ান সেনারা বাংলাদেশের জাতীয় পতাকায় আচ্ছাদিত মিজারুল কায়েসের মরদেহ তাদের কাঁধে নিয়ে ধীরে ধীরে পরিদর্শন করছিলেন গার্ড অব অনার। গার্ড অব অনার শেষে প্রয়াত রাষ্ট্রদূতকে গান স্যালুট প্রদান করে ব্রাজিলিয়ান সামরিক বাহিনী। এসময় বাজানো হয় বাংলাদেশ ও ব্রাজিলের জাতীয় সঙ্গীত। ব্রাজিলে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা এসময় উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ব্রাজিল সরকারের পক্ষে সদ্য প্রয়াত রাষ্ট্রদূতের প্রতি সম্মান জানিয়ে নিজ দেশের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্র সচিব এম্বেসেডর মার্কোস বেজেররা এববট গালভাও (Ambassador Marcos Bezarra Abbott Galvao) এবং বাংলাদেশের পক্ষে ব্রাসিলিয়া বাংলাদেশ দূতাবাসের চারয দ্যা এফেয়ার্স সুমনা ইকবাল। ব্রাজিলের পররাষ্ট্র সচিব তাঁর বক্ততায় মিজারুল কায়েসের মৃত্যুতে ব্রাজিল সরকারের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করে বলেন, মেধাবী এই কুটনীতিক ব্রাজিল-বাংলাদেশ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করতে বিশেষ অবদান রেখে গেছেন। তিনি বাংলাদেশ সরকার ও প্রয়াত রাষ্ট্রদূতের পরিবার পরিজনদের প্রতি ব্রাজিলের সরকার ও জনগনের পক্ষ থেকে গভীর সমবেদনার জানান। বাংলাদেশ দূতাবাসের চারয দ্যা এফেয়ার্স সুমনা ইকবাল রাষ্ট্রদূত হারানোর এই কঠিন দু:সময়ে সহানুভূতি, সমবেদনা ও সার্বিক সহযোগিতা দেয়ায় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ব্রাজিল সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি তাঁর প্রয়াত রাষ্ট্রদূতকে একজন মহান মানুষ উল্লেখ করে বলেন, তাঁর মৃত্যু বাংলাদেশের কুটনৈতিক অঙ্গনের জন্যে এক বিরাট ক্ষতি।

১৭ মার্চ’ ২০১৭, ২২:০৩ জিএমটি

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *