ন্যাপ নেতা সুকুমার দেবরায়ের ইন্তেকাল


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

ঢাকা করেসপন্ডেন্ট
সত্যবাণী

ঢাকা: ষাটের দশকের ছাত্র আন্দোলনের নেতা, ১৯৭২-৭৩ সালের বৃহত্তর সিলেট জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি, ঐক্য ন্যাপ সভাপতি মন্ডলীর সদস্য, বীর মুক্তিযাদ্ধা সুকুমার দেবরায় আর নেই। শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় ঢাকা মীরপুরের নিজ বাসভবনে  মস্তিস্কে রক্তক্ষরনে আক্রান্ত হয়ে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৪ বছর।

প্রয়াত সুকুমার দেবরায় একজন সজ্জন ব্যাক্তি হিসেবে তাঁর বন্ধুমহলে ব্যাপক সমাদৃত ছিলেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠান সিসিডিএ’র নির্বাহী পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। রাজনৈতিক ও সামাজিক অঙ্গনে তাঁর ছিলো ব্যাপক পরিচিতি। 

১৯৭১ সালে ন্যাপ, কমিউনিষ্ট পার্টি ও ছাত্র ইউনিয়নের যৌথ গেরিলা বাহিনীর সদস্য হিসেবে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন সদ্য প্রয়াত সুকুমার দেবরায়। ছাত্র ইউনিয়নের সিলেট জেলা সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছাড়াও যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সহসভাপতির দায়িত্বও পালন করেন তিনি। বৃহত্তর সিলেটের সন্তান মি: দেবরায় মৃত্যুর আগ পর্যন্ত জালালাবাদ এসোসিয়েশন ঢাকা’র সদস্য হিসেবেও ছিলেন সক্রিয়।

তাঁর দেশের বাড়ী হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তা গঞ্জের বড়চর গ্রামে। শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায় নিজ গ্রাম বড়চরেই তাঁর শেষকৃত্য সম্পাদন করা হয়।

এদিকে, সুকুমার দেবরায়ের মৃত্যুতে গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে রাজনৈতিক অঙ্গন ও তাঁর বন্ধু মহলে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বন্ধুদের অনেকেই শোক বিহ্বল হয়ে পড়েন। ঐক্য ন্যাপের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য আব্দুল মোনায়েম নেহরু, সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা তারেক, বাংলাদেশ সরকারের সাবেক যুগ্ম সচিব ও জালালাবাদ এসোসিয়েশন ঢাকার সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জগলুল পাশা, প্রয়াতের মুক্তিযোদ্ধা সহকর্মী, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা আবু মুসা হাসান এবং নিউইয়র্ক প্রবাসী সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা ও সুকুমার রায়ের সহযদ্ধা সুব্রত বিশ্বাসসহ অনেকেই শোক বিহ্বল হয়ে তাদের এক সময়ের বন্ধু, নেতা, সহকর্মী সুকুমার রায়ের মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের শোক অনুভূতি প্রকাশ করেন।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *