ব্রাজিলের সাঁও পাওলোতে কনসুলেট অফিস ও শহীদ মিনার স্থাপনের উদ্যোগ


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

প্রেস রিলিজ ডেস্ক
সত্যবাণী

সাঁও পাওলো: ব্রাজিলের বানিজ্যিক রাজধানী সাঁও পাওলোতে বাংলাদেশ কনসুলেট জেনারেল অফিস ও স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

চতুর্থ উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে ব্রাজিল বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত অনুষ্ঠানে ব্রাজিলে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মো: জুলফিকার রহমান তাঁর বক্তৃতায় এই উদ্যোগের কথা জানান। ব্রাজিলের বাণিজ্যিক রাজধানী সাঁও পাওলোতে গত ৩ ও ৪ অক্টোবর দুদিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় উন্নয়ন মেলা ও কন্সুলার ক্যাম্প। ব্রাজিলে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের সহযোগিতায় বাংলাদেশ দূতাবাস এই প্রথমবারের মত রাজধানী ব্রাসিলিয়া হতে ১২০০ কিলোমিটার দূরে বাণিজ্যিক নগরী সাঁও পাওলোতে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে। বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী এতে অংশ নেন। স্থানীয় একটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে দুদিনব্যাপী আয়োজিত এ মেলা ও কনস্যুলার ক্যাম্পে বহু প্রবাসী বাংলাদেশী, সাঁও পাওলো চেম্বারের প্রতিনিধি এবং স্থানীয় ব্রাজিলিয়ানরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

9245EA3E-1E9A-4D29-BC31-A13551C46AFFমেলার পুরো কেন্দ্র বিভিন্ন রঙিন পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন ও বাংলাদেশের বড় বড় প্রকল্প, পর্যটন কেন্দ্র ও বাংলার অপরূপ দৃশ্য সংবলিত ছবি দিয়ে সাজানো হয়। মেলা প্রাঙ্গনে জাতির জনক, মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিকৃতিও প্রদর্শন করা হয়।মেলার অংশ হিসেবে বাংলাদেশী পণ্য ও কারুশিল্প দিয়ে সাজানো ছিলো কয়েকটি ষ্টল।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর বর্তমান সরকারের সাফল্যগাঁথা দিয়ে সাজানো ৪৫ মিনিট দীর্ঘ একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এরপর মূল পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের অর্জন নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এ পর্বে রাষ্ট্রদূত জুলফিকার রহমান সরকারের অর্জন, এ অর্জনে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অবদান ইত্যাদি বিষয় নিয়ে দীর্ঘ উপস্থাপনা ও বক্তব্য প্রদান করেন। রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সরকারের সফলতার পাশাপাশি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন যাত্রায় ১০ টি বিশেষ উদ্যোগের ভূমিকার উপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল বাংলাদেশের চলমান উন্নয়ন প্রক্রিয়ার আর্থ-সামাজিক অন্তর্ভুক্তি বিষয়ক শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্যোগ।

94F86E6C-F18D-4D56-AF40-8CB89AD181AAউদ্যোগগুলো হলো: প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সফলতার সাথে এমডিজি অর্জন এবং এসডিজি অর্জনে বর্তমান সরকারের কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন।

স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কৃষি, বিজ্ঞান, তথ্য-প্রযুক্তি, টেলিযোগাযোগসহ মহাকাশে বাংলাদেশের স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ।

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে উত্তরণ এবং মধ্যম আয়ের দেশে উত্তরণে কর্মপরিকল্পনা।

চলমান বিভিন্ন বড় বড় প্রকল্প সম্পর্কে আলোচনা, যেমন মহাকাশে বাংলাদেশের স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ, দেশীয় অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণ, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ ইত্যাদি।

আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি ও পুরস্কার লাভ।

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মানে ভিশন ২০২১ ও ২০৪১।

বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অবদান।

এবং  সাঁও পাওলোতে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল অফিস ও একটি স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণ।

রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যে বিশেষতঃ প্রবাসী বাংলাদেশীদের জন্য সেবার মান বৃদ্ধি, কনস্যুলার সেবা প্রবাসীদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়া এবং বাংলাদেশের সঙ্গে ব্রাজিলের বাণিজ্য সম্প্রসারণের লক্ষ্যে সাঁও পাওলোতে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল স্থাপনে তাঁর উদ্যোগের বিষয়ে উপস্থিত বাংলাদেশীদেরকে অবহিত করেন। তিনি সাঁও পাওলোতে স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণে তাঁর পরিকল্পনার কথাও পুনর্ব্যক্ত করেন। প্রবাসী বাংলাদেশীরা রাষ্ট্রদূতের উদ্যোগসমূহের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করেন। আলোচনা শেষে প্রশ্নোত্তর পর্বে মান্যবর রাষ্ট্রদূত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রবাসীদের প্রশ্নের উত্তর দেন।

অনুষ্ঠানের আরেকটি অন্যতম আকর্ষণ ছিল “অপরূপ বাংলাদেশ” এই প্রতিপাদ্য নিয়ে বাংলাদেশী শিশু কিশোরদের অংশগ্রহণে রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন ও পুরস্কার বিতরণ।

অনুষ্ঠান শেষে ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবার পরিবেশন করা হয়।

মেলার পাশাপাশি ৩ ও ৪ অক্টোবর ২০১৮ দু’দিনই প্রবাসী বাংলাদেশীদেরকে কনস্যুলার সেবা প্রদান করা হয়।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *