পূর্ব লন্ডনে আন্তর্জাতিক মানের দাবা প্রতিযোগিতা বিবিসিএ ফিডে রেপিড প্লে চেস টুর্নামেন্ট


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট
সত্যবাণী

লন্ডন: বিপুল উৎসাহউদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পূর্ব লন্ডনে অনুষ্ঠিত হলো ব্রিটিশ বাংলা চেস এসোসিয়েশনের তৃতীয় আন্তর্জাতিক মানের দাবা প্রতিযোগিতা। ১১ নভেম্বর রোববার কমার্শিয়াল রোডের লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমিতে বিপুল সংখ্যক দাবাড়ুর অংশ গ্রহণের মধ্যদিয়ে অনুঠিত হলো এই আকর্ষণীয় দাবা প্রতিযোগিতা। জাতিবর্ণনির্বিশেষে বৃহত্তর লন্ডন, বার্মিংহাম অক্সফোর্ডসহ যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহরের  প্রায় ৯০ জন দাবাড়ু এতে অংশ নেন। অংশগ্রহনকারীদের মধ্যে তুখোড় দাবাড়ু একজন গ্রান্ড মাষ্টার, একজন ইন্টারন্যাশনাল মাষ্টার এবং পাঁচজন  ফিডে মাষ্টারও উপস্থিত ছিলেন।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী রিমেম্বারেন্স ডে উপলক্ষে সকাল ১১টায় সমগ্র ব্রিটেনবাসীর সাথে একাত্ব হয়ে দুই মিনিট নীরবতা পালন করে আনুষ্ঠানিকভাবে বিবিসিএ ফিডে রেপিড প্লে দাবা টুর্নামেন্ট শুরু হয়।

দুটি ক্যাটাগরিতে এই টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগীদের মধ্যে শক্তিশালী খেলোয়াড়রা অংশ নিয়েছেন ওপেন সেকশনে। আর কেবলমাত্র অনূর্ধ ফিডে ১৮০০ রেটিং এর খেলোয়াড়রা মেজর সেকশনে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। তবে অনূর্ধ ১৮০০ রেইটিং এর কোন কোন দাবাড়ু স্বেচ্চায় ওপেন সেকশনে খেলেছেন নিজেদের শক্তি পরীক্ষার জন্য।

A08533C1-2924-43F8-A462-CCEB257C45E2দিনভর সুইস পদ্ধতিতে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যে ছয় রাউন্ড খেলাশেষে উচ্চতর ক্যাটাগরিতে (ওপেন বিভাগে ) ছয় পয়েন্টের মধ্যে সাড়ে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ান হয়েছেন ইন্টারন্যাশনাল মাষ্টার জাপোইস্কি আনতানাস। সমান সংখ্যক পাঁচ পয়েন্ট পেয়ে যৌথভাবে রানার্সআপ হয়েছেন গ্রান্ড মাষ্টার বোগদান লালীচ, বিবিসিএ সদস্য ফিডে মাষ্টার জভিকা রাদোভানোভিচ এবং বাজরুশ কেলমেন্ডি।                                                                

ওপেন বিভাগে রেইটিং ক্যাটগরিতে সেরা খেলোয়াড় হিসেবে  অনূর্ধ ২১০০ ফিডে রেইটিং প্রাইজ পেয়েছেন ফিলিপ মেইকপীস ফ্রান্সিসকো সালেরনো এবং অনূর্ধ ১৯০০ রেইটিং প্রাইজ পেয়েছেন গোলাম আলী পারভেজ শাহজাহন সাইদমোরোদভ। ওপেন বিভাগে বিবিসিএ  বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ ইসলাম হীরক।  

দ্বিতীয় ক্যাটাগরিতে (মেজর বিভাগ)  সমান সংখ্যক  পাঁচ পয়েন্ট পেয়ে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ান হয়েছেন বিবিসিএএর সদস্য আহমেদুল হক, টীম ভ্যালেন্টাইন, মোহসীন আবেদিয়ান এবং ড্যারেক হার্ভি।

আর এই বিভাগে রেইটিং ক্যাটগরিতে সেরা খেলোয়াড় হিসেবে অনূর্ধ ১৬০০ রেটিং  প্রাইজ পেয়েছেন বিবিসিএএর হোরহে আপাজা লুকাস পিয়েচা এবং তামার পঙ্কজ।

অনূর্ধ ১৪৫০ রেটিং প্রাইজ  পেয়েছেন  ডেভিড নাইট  জেমস হার্টম্যান এবং  অনূর্ধ ১৩০০ রেটিং প্রাইজ পেয়েছেন গুল কাপুর। মেজর বিভাগে বিবিসিএ  বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন দরবেশ চৌধুরী

অন্যদিকে  অনুর্ধ ১৬ বছরের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে বিশেষ  প্রাইজ পেয়েছেন এমিলী মেইটন।

বিবিসিএ ফিডে রেপিড প্লে ২০১৮ টুর্নামেন্টের চীফ আর্বিটারের দায়িত্ব পালন করেছেন যুক্তরাজ্যের স্বনামধন্য আর্বিটার এডাম রাউফ। আর্বিটারের দায়িত্ব পালন করেন মাইক্যাল ফ্ল্যাট।

প্রতিযোগিতা শেষে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন রেডব্রীজ কাউন্সিলের ডেপুটি হুইপ কাউন্সিলার সৈয়দা সায়মা আহমেদ, ক্যাপিট্যাল কিডস ক্রিকেটের সিইও এবং লন্ডন টাইগার্স ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম রতন, মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেইন, মাহাবুব এ্যান্ড কোং এর সত্বাধিকারী মাহবুব মোর্শেদ ও সাপ্তাহিক পত্রিকার সম্পাদক মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরী

স্পন্সরদের মধ্যে ছিলেন, লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমী, বিয়ানি বাজার ওয়েলফেয়ার  ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান, ফেইথ প্রিন্টার্স এর সত্বাধিকারী মোসলেহউদ্দিন আহমেদ, দীপালিকারী কুজিনের সত্বাধিকারী মুজাহিদ চৌধুরী, ওয়াহিদ আহমেদ এন্ড কোম্পানী চার্টার্ড ম্যানেজমেন্টের একাউন্টেন্ট ওয়াহিদ আহমেদ, কলাপাতা বাংলাদেশী রেস্টুরেন্ট, ক্লিফটন গ্রুপ, কিংডম সলিসিটার্স, দীপালি কারি কুজিন, এম্পল পোপার্টিজ,  কেইক স্ট্রীট, কালাম সলিসিটার্স, ক্যাপিটেল সলিসিটার্স ও হোসেইন এসোসিয়েটস । দুপুরের মজাদার খাবার সরবরাহ করেছে অল সিজন্স ফুডস।

বিবিসিএএর  সাধারণ সম্পাদক মোশতাক চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি তারিক খান,  প্রধান উপদেষ্টা আবু মুসা হাসান, কোষাধক্ষ্য কবি মাজেদ বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ নান্নু, সহ সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসলাম হীরক, সহ সভাপতি মেসবাহ কামাল, মাসুদুল হক, মোহাম্মদ আলী চৌধুরী বাবু, আহমেদুল হক, অলিভার ফিনাগান, জর্জ আপজা, শন মারায়েশা, হাসান মুগালু ও কলিন হিউজ প্রমুখ কর্মকর্তা এবং সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

254208FA-A528-4FC6-BABC-7BF3D5B27494বিবিসিএএর আতিথিয়তায়তার প্রশংসা করছেন অংশগ্রহণকারীরা। যারা পুরস্কার লাভ করতে পারেননি, তারাও হাসিমুখেই ফিরে গেছেন এবং আগামী বছর আবার পূর্ব লন্ডনের এই দাবা উৎসবে যোগ দেয়ার আশা ব্যাক্ত করেন।

মূলতঃ প্রবাসী বাঙালি দাবাড়ুদের উদ্যোগে তিন বছর আগে বাঙালি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটস ব্রিটিশ বাংলা চেস এসোসিয়েশন (বিবিসি) এর যাত্রা শুরু হয়। এদের মধ্যে বাংলাদেশের জাতীয় দাবাদলের কয়েকজন সাবেক খেলোয়াড়ও রয়েছেন।

পূর্ব লন্ডনে দাবা খেলার প্রসার ঘটানোর জন্য ব্রিটিশ বাংলা চেস এসোসিয়েশনের উদ্যোগে টাওয়ার হ্যামলেটস প্যারেন্টস সেন্টারে প্রতি রোববার বিকেলে অনুঠিত হয় প্রশিক্ষণ প্র্যাকটিস সেশন।  প্রতিমাসের শেষ রোববার অনুঠিত হয় ঘরোয়া টুর্নামেন্ট।

সবার জন্য এই সংগঠনের সদস্যপদ উন্মুক্ত। ধর্মবর্ণ  নির্বিশেষে লন্ডনের বিভিন্ন এলাকার দাবাড়ুরা বিবিসিএএর সদস্য হচ্ছেন।

উল্লেখ্য,  লন্ডন সামার চেস লীগে বিবিসিএ পরপর দুবার চ্যাম্পিয়ান হয়েছে। বিবিসিএ ঐতিহ্যবাহী লন্ডন চেস লীগেও অংশ নিচ্ছে। গতবছর বিবিসিএ এর একটি দল চতূর্থ ডিভিশনে চ্যাম্পিয়ান হয়ে এবছর তৃতীয় ডিভিশনে খেলছে। এছাড়া অপর একটি দল এবছর থেকে ষষ্ঠ ডিভিশনে অংশ নিচ্ছে।

 

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *