এক নজরে সিলেট-৬ ( গোলাপগঞ্জ -বিয়ানীবাজার) আসন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

আলী বেবুল
সত্যবাণী

সিলেটঃ শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৬ ( গোলাপগঞ্জ -বিয়ানীবাজার) আসন থেকে ৬ বার অংশ নিয়ে ৪ বার নির্বাচিত হয়েছেন।৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৬ ( গোলাপগঞ্জ -বিয়ানীবাজার) আসনে ৮৮ হাজার ৮৫০ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়ে চতুর্থ বারের মতো সাংসদ নির্বাচিত হলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
নৌকা প্রতীক নিয়ে মহাজোটের প্রার্থী নাহিদ ভোট পেয়েছেন ১ লাখ ৯৬ হাজার ৪২১ ভোট।প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি’র ফয়সল চৌধুরী পেয়েছেন ১ লাখ ৭ হাজার ৫৭১ ভোট।এ আসনে মোট ভোটার ছিলেন ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮৮৫
উল্লেখ্য নুরুল ইসলাম নাহিদ এ আসনে ইতোপূর্বে ৫ বার অংশগ্রহণ করেন এবং ৩ বার বিজয়ী হন।১৯৯৬ সালে সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথম বারের মতো নৌকা প্রতীক নিয়ে নুরুল ইসলাম নাহিদ বিজয়ী হন ( প্রাপ্তভোট: ৫৩,৯৬৫ )।নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জাতীয় পার্টির মোজাম্মিল আলী ( প্রাপ্তভোট: ৩৪,৬৯১)।সে সময় নাহিদ ১৯ হাজার ২৭৪ ভোট বেশী পেয়ে সাংসদ নির্বাচিত হন।সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় এ আসনে মোট ভোটার ছিলেন ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৩১

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদে ৮৬ হাজার ৫৮৯ ভোটে বেশী পেয়ে নুরুল ইসলাম নাহিদ দ্বিতীয় বারের মতো সাংসদ নির্বাচিত হন। ( প্রাপ্তভোট: ১,৩৮,৩৫৩ )নিকততম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন চারদলীয় জোটের প্রার্থী জামাতের হাবিবুর রহমান (প্রাপ্তভোট ৫১,৭৬৪ )সে সময় এ আসনে মোট ভোটার ছিলেন ২ লাখ ৯৪ হাজার ৭০৬ ভোট।
২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হন।২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদে  পরাজিত হন।( প্রাপ্তভোট ৭১,৫১৭ )এ বছর সাংসদ নির্বাচত হন সৈয়দ মকবুল হোসেন লিচু মিয়া।ঘড়ি প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচন করলেও বিএনপির নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট লিচু মিয়াকে সমর্থন প্রদান করে।( প্রাপ্তভোট: ৭৬,৫১৩ )।তৎকালীন সময়ে মাত্র ৪ হাজার ৯৯৬ ভোটে নৌকা প্রতীক নিয়ে নাহিদ হেরে যান।এ সময় আসনে মোট ভোটার ছিলেন ২ লাখ ৭৩ হাজার ৫৮৫।১৯৯১ সালে ৫ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রথম বারের মতো মতো অংশ নিয়ে ৫ হাজার ৭৩৩ ভোটে জাতীয় পার্টির  সরফ উদ্দিন খসরুর নিকট হেরে যান। খসরুর প্রাপ্তভোট: ৩৯,০৬৫  এবং নাহিদের প্রাপ্তভোট :৩৩,৩৩২ ।৫ম জাতীয় সংসদের সময় এ আসনে মোট ভোটার ছিলেন ২ লাখ ৬০ হাজার ৬১০।
উল্লেখ্য,বঙ্গবন্ধু সরকারের শাসনামলে ১৯৭৩ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে এডভোকেট আব্দুর রহিম,জিয়াউর রহমানের সরকারের শাসনামলে ১৯৭৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লুৎফুর রহমান এবং এরশাদ সরকারের শাসনামলে ১৯৮৬ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সৈয়দ মকবুল হোসেন লিচু মিয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাংসদ নির্বাচিত হন।স্বাধীন বাংলাদেশে এ আসন থেকে নির্বাচিত সাংসদদের মধ্যে একমাত্র নুরুল ইসলাম নাহিদই মন্ত্রী হয়েছেন।উল্লেখ্য নাহিদ টানা ১০ বছর আওয়ামীলীগ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে সফলতা ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।এছাড়া তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাতিসংঘের  শিক্ষা,বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা (ইউনেস্কো)’র ভাইস-চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।এছাড়া বিশ্বের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি প্রতিনিধিত্বকারী নয়টি দেশের শিক্ষা ও উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রীদের ই-নাইন ফোরামের চেয়ারম্যান ।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *