গণতন্ত্রের স্বার্থে বিএনপিকে সংসদে যোগদানের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব দুর্নীতিগ্রস্ত,সাজাপ্রাপ্ত এবং পলাতক আসামি বলেই জনগণ নির্বাচনে তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে।তিনি বলেন,বিএনপি নির্বাচনে হেরেছে এ দোষ তাদের।তবে গণতন্ত্রের স্বার্থে তাদের সংসদে আসা উচিত।শনিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের কার্যনির্বাহী সংসদ এবং উপদেষ্টা পরিষদের যৌথসভার সূচনা বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন,২০১৮ এর নির্বাচনে বিএনপি যদি মনোনয়ন বাণিজ্য না করত,তাহলে হয়তো তাদের ফলাফল আরও একটু ভালো হতে পারত।

খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের কথা তুলে ধরে তিনি আরও বলেন,দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এতিমের টাকা লুটের অভিযোগে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেলে আছেন আর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান হত্যা মামলা, দুর্নীতি এবং মানিলন্ডারিংসহ একাধিক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি।এসব কর্মকাণ্ডের জন্যই তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করেছে।বিএনপির সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন,অতীতের মতো সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনও বিএনপি বানচালের চেষ্টা করেছিল।এবারও তাদের নির্বাচন বানচালের প্রচেষ্টা সবাই দেখেছে।২০১৪ সালের নির্বাচনও তারা বানচাল করার অপচেষ্টা করেছিল।বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে যে মামলা হয়েছে তা নিজ গতিতেই চলবে বলেও জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন,আমরা প্রতিটি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এসেছি,আমরা অগ্নিপরীক্ষা দিয়ে এসেছি।জনগণের বিশ্বাস, আস্থাটা যে কারণে আমাদের ওপরে এসেছে।আমরা রাষ্ট্র পরিচালনা করি জনগণের কল্যাণে,জনগণের স্বার্থে।আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন,আমরা এইটুকু বলতে পারি যে আমরা যখন সরকারে এসেছি,আমরা দেশের জন্য কাজ করেছি।জনগণের জন্য কাজ করেছি।আমরা কিন্তু কাউকে কোনো হয়রানি করতে যাইনি।তিনি বলেন, জনগণ আজকে উপলব্ধি করতে পারে এবং আমরা উন্নয়নের যে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি,সব সময় লক্ষ্য করি গ্রামের মানুষ,তৃণমূলের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে।তারা একটু সুন্দর জীবন পাবে,তারা একটু উন্নত জীবন পাবে।প্রতিটি ক্ষেত্রে তাদের জীবনমান উন্নত হয়,সেদিকে লক্ষ্য রেখেই আমরা প্রতিটি কর্মসূচি নিয়েছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের,উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু,তোফায়েল আহমেদ,এইচ টি ইমাম,সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রাজ্জাক,শেখ ফজলুল করিম সেলিম,কাজী জাফরউল্লাহ,মতিয়া চৌধুরী প্রমুখ।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *