৫ সমস্যা সমাধানের নির্দেশ শিক্ষামন্ত্রীর


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ শিক্ষামন্ত্রী ডা.দীপু মনির দৃষ্টিতে শিক্ষায় জনসম্পৃক্ত বড় সমস্যা মোটাদাগে পাঁচটি।এগুলো হচ্ছে-পাঠ্যপুস্তকের কারিকুলাম,প্রশ্নফাঁস,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত অর্থ আদায়,কোচিং বাণিজ্য এবং শিক্ষা প্রশাসন কার্যকর।সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ বিভাগের বিভিন্ন উইং প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি চিহ্নিত সমস্যাগুলো সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।এ সময় তার পাশে মাদ্রাসা ও কারিগরি বিভাগের উপমন্ত্রী মহিবুর হাসান চৌধুরী নওফেল উপস্থিত ছিলেন।

মূলত মন্ত্রী হিসেবে মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম শুরুর লক্ষ্যে তাদের এটা ছিল আনুষ্ঠানিক প্রথম বৈঠক।আগামী ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে ২০১৯ সালের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা।পরীক্ষা নিয়ে দায়িত্বগ্রহণের প্রথম দিন থেকেই মন্ত্রী ও উপমন্ত্রী জোরদার ও সতর্কমূলক অবস্থান গ্রহণ করেছেন।প্রথম বৈঠকেও তাদের সেই অবস্থানের চিত্র ফুটে উঠেছে।বৈঠকের শুরুর দিকে সব উইং প্রধান আলাদাভাবে বিগত ১০ বছরে মন্ত্রণালয়ের অর্জন ও সফলতার চিত্র তুলে ধরেন।পাশাপাশি তাদের নিজ নিজ কার্যক্রম তুলে ধরেন প্রজেক্টরের মাধ্যমে।এর সঙ্গে বিদ্যমান সমস্যাগুলোও উল্লেখ করা হয়।এ সময় বলা হয়,বর্তমানে পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি,পাবলিক পরীক্ষায় ফরম পূরণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাড়তি অর্থ আদায়ের কথা উঠে আসে।

তখন শিক্ষামন্ত্রী বলেন,জনগণের ভোগান্তি ও সমস্যা নিরসনে কাযকর পদক্ষেপ নেয়াই হবে আমাদের সরকারের অগ্রাধিকার।তাই এসব বেআইনি কাজ বন্ধে পদক্ষেপ নিতে হবে।এ ক্ষেত্রেই শুধু নয়,সব ধরনের সমস্যা সমাধানে শিক্ষা প্রশাসনকে আরও কার্যকর হতে হবে।আলোচনায় উঠে আসে কোচিং বাণিজ্যের দৌরাত্ম্য ও কারিকুলামের যুগোপযোগিতার বিষয়।তিনি কোচিং বাণিজ্যের বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেন,ধীরে ধীরে এটা বন্ধ করতে হবে।এ সময় যুগোপযোগী কারিকুলাম তৈরির ইঙ্গিত দেন।বৈঠকে পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে আটকে থাকা শিক্ষা আইন পাসের মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন করার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।শিক্ষা আইন বাস্তবায়ন হলে বিদ্যমান অনেক সমস্যা দূর হবে।

মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এই বৈঠক সকাল ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলে।সভায় সরকারি-বেসরকারি বিদ্যালয় শাখা,কলেজ শাখার দুই শাখা,বিশ্ববিদ্যালয়,উন্নয়ন,প্রশাসন,পরিকল্পনা উইং প্রধান ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠক শেষে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো.সোহরাব হোসাইন বলেন,শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সার্বিক কার্যক্রম মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরা হয়েছে।পাশাপাশি প্রশ্নফাঁসসহ বর্তমান সংকটগুলো নিয়েও আলোচনা হয়েছে। দ্রুত এসব সমস্যা লাঘব করে শিক্ষা প্রশাসনকে আরও কার্যকর করে তুলতে নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

সচিব বলেন,আমাদের সন্তানদের জন্য পাঠ্যপুস্তকের কারিকুলাম পরিবর্তনের আলোচনা হয়েছে।তাই নতুন কারিকুলাম তৈরির জন্য বলা হয়েছে।শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন খাতের নামে যে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হচ্ছে, তা একটি নির্দিষ্ট পর্যায়ে কীভাবে আনা সম্ভব হয়;সে বিষয়েও আমরা আলোচনা করেছি।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *