কারী ইন্ডাষ্ট্রির সমস্যা-সম্ভাবনা জানতে জরিপ করবে এপিপিসিজি


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

আহাদ চৌধুরী বাবু                                 কমিউনিটি নিউজ এডিটর, সত্যবাণী

লন্ডন: ব্রিটেনের কারী ইন্ড্রাস্ট্রীর সমস্যা-সম্ভাবণার বাস্তব চিত্র তুলে ধরতে জরিপ শুরু করতে যাচ্ছে অল পার্টি পার্লামেন্টারী কারী গ্রুপ (এপিপিসিজি)। ওয়েলস বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের (ডব্লিউবিসিসি) আয়োজনে এক রোড শো অনুষ্টানে এ ঘোষনা দেন এপিপিসিজি’র চেয়ার পল স্কালী এমপি।

গত মঙ্গলবার অনুষ্টিত ওয়েলস বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্সের এই প্রথম রোডশো অনুষ্ঠিত হয় নিউপোর্টের অভিজাত একটি হোটেলে। ২০১৭ সালে পাচটি রোড শোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে ডব্লিউবিসিসি। এতে প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এপিপিসিজি চেয়ার পল স্কালী এমপি।  তিনি তার বক্তৃতায় বলেন, বৃটিশ অর্থনীতির অন্যতম যোগানদার এই কারী ইন্ড্রাস্ট্রী দক্ষ শেফের অভাবে আজ হুমকির মুখে। অনেক ব্যবসায়ী ব্যবসা খুলেই শুধু লাভের মুখ দেখতে চান বলেই দীর্ঘ মেয়াদে ঠিকতে পারেননা, এমনটিই মনে করেন পল স্কেলী।  তিনি বলেন, আজকের সময়ে পি আর বা ডিজিটাল মার্কেটিং যেখানে মডার্ন বিজনেস স্ট্রেটেজি, সেখানে এবিষয়ে উদাসীন অনেক রেষ্টুরেন্ট ব্যবসায়ী। ফলে কারী শিল্পের ঐতিহ্যের সাথে আধুনিকতার সংমিশ্রন ঘটাতে তারা ব্যর্থ হচ্ছেন, আকৃষ্ট করতে পারছেননা এই প্রজন্মের কাষ্টমার।

এপিপিসিজি চেয়ার জানান, কারী শিল্পের সমস্যা-সম্ভাবণা চিহ্নিত করতে খুব শ্রীঘ্রই এপিপিসিজি একটি জরিপ পরিচালনা করবে। এই জরীপে কারী ইন্ড্রাস্টীর বর্তমান বাস্তব অবস্থা বেরিয়ে আসবে, এমনটিই মনে করেন সরকার দলীয় এই ব্রিটিশ এমপি।

ডব্লিউবিসিসির সেক্রেটারী জেনারেল মাহবুব নূর এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এই রোডশো অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চেম্বার চেয়ার দিলাবর এ হুসাইন। তিনি তাঁর বক্তৃতায় বলেন, ‘এবারের প্রত্যেকটি রোডশোতে কারী ক্রাইসিস ও এর সমাধানের বিষয়টির উপর গুরুত্ব দেয়া হবে’। ওয়েলস বা বৃটেনে বর্তমানে কি পরিমাণ রেস্টুরেন্ট ও টেকওয়ে আছে তার সাম্প্রতিক কোন পরিসংখ্যান নেই, এমন মন্তব্য করে দিলাবর এ হোসাইন বলেন, কেউ বলছেন আট হাজার, কেউ দশ হাজার, বারো হাজার আবার কেউ বলছেন পনের হাজারের কথা।  তিনি জানান সঠিক সংখ্যা নির্নয়সহ কারী ইন্ডাষ্ট্রির সার্বিক অবস্থা জানতে শীঘ্রই ডব্লিউবিসি, ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ওয়েলস, এপিপিসিজি ও অন্যান্য সংগঠ্ন মিলে একটি জরীপ পরিচালনা করবে।

উল্লেখ্য, ইউকে ও ওয়েলসের ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে ফেডারেশন অফ স্মল বিজনেস। ব্যবসায়ীদের রেন্ট বা রেইটের মতো নানা সমস্যা সমাধানের জন্য কাজ করছে এ ফেডারেশন।

ইউকে পলিসি পোর্টফলিও ডাইভার্সিটি এন্ড হেল্থ এফএসবি চেয়ার হেলেন ওয়েলবিও উপস্থিত ছিলেন রোডশো অনুষ্ঠানে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা ছাড়াও এতে আরও উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ওয়েলস ইন্টারন্যাশনাল রিকুয়ারমেন্ট অফিসার ডেবিড জয়েস, ওয়েলস বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্সের ভাইস চেয়ার আব্দুল কাহিম, ডেপুটি সেক্রেটারী ইমতিয়াজ হুসাইন জাকি, ফাইনান্স ডাইরেক্টর আবু তাহের খান, ট্রেড এন্ড ইনভেস্টমেন্ট ডাইরেক্টর আব্দুল আলিম, মিডিয়া ডাইরেক্টর আফজুল খান, বোর্ড ডাইরেক্টর মোক্তার আহমেদ, শাহ শাফী ও অফিসিয়াল ফটো সাংবাদিক জাকু প্রমূখ। এপ্রিল মাসের ছাব্বিশ তারিখ নিউ টাউনে অনুষ্টিত হবে দ্বিতীয় রোড শো।

11th April’2017, 22:29 BST

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *