পাঠাগার নির্মাণের জন্য আর্থিক অনুদান সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালামের


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

শামীম আহমদ তালুকদার
সত্যবাণী

সুনামগঞ্জ থেকেঃ সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বীরগাওঁ ইউনিয়নের টাইলা গ্রামের অসংখ্য ধামালী গানের রচয়িতা  প্রয়াত কবি প্রতাপ রঞ্জন তালুকাদের স্মৃতি ধরে রাখার লক্ষ্যেই তার নিজ বাড়িতে পাঠাগার নির্মানের জন্য ৩০ হাজার টাকার আর্থিক অনুদান প্রদান  করা হয়েছে।আজ শুক্রবার দুপুর দেড়টায় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম তার হাজীপাড়াস্থ বাসভবণে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে প্রয়াত কবির ছেলে প্রসেন তালুকদারের হাতে এই আর্থিক অনুদান তুলে করেন।

উল্লেখ্য প্রয়াত কবি প্রতাপ রঞ্জন সুরমা নদী ঘেরা একটি অজপাড়া  টাইলা গ্রামে ১৩৫২ বাংলা চৈত্র মাসে দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহন করেন এবং ২০০৯ সালের ৭ই অক্টোবর মৃত্যুবরণ করেন। তার পিতার নাম ছিল স্বগীয় প্রমোদ রঞ্জন তালুকদার এবং মাতার নাম ছিল  স্বর্গীয় অমূল্যে বালা তালুকদার। তিনি ছোটবেলায় তার পিতামাতাকে হারিয়ে তিনবোনসহ ৪ জনের টানাপোড়নের সংসারের হাল ধরতে জীর্ণ কূটিরে দীর্ঘদিন বসবাস করে আসছিলেন। পরবর্তী সময়ে তার বিয়ের পর স্ত্রী ২ ছেলে ও ২ মেয়ের এই সংসারে অন্যর বাড়িতে দিনমুজুরের কাজ করেও কাজের ফাঁকে ফাঁকে তিনি ধামালী গান রচনা করে গেছেন।এক সময় ছিল যার নুন আনতে পানতা পুড়ানোর অবস্থা,কবি দারিদ্রতার কষাঘাতে দিনের পর দিন অভাব অনটন তার পিছু না ছাড়লেও তিনি দারিদ্রতার কাছে কখনো হার মানেননি।তিনি প্রাইমারী স্কুলের গন্ডি পেরিয়ে হাইস্কুলে পা রাখতে না পারলে ও তার জীবদ্দশায় তিনি হাজারো ধামালী গান রচনা করে গেছেন। এই গুনী কবি সব সময় মিডিয়া জগতের সংস্পর্শে না থাকার কারণে তিনি মরমী বাউল সাধক শাহ আব্দুল করিমের সম পরিমাণ হওয়ার পরও বর্হিবিশ্বে পরিচিত লাভ করতে পারেননি।তার এই ধামালী গানগুলোর প্রচলন সব সময়ই আছে।বিশেষ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিয়ে অনুষ্ঠানে অধিবাসরে মহিলাদের ধামালীর গানের অধিকাংশ গানগুলোর রচয়িতা প্রয়াত এই কবি প্রতাপ রঞ্জন তালুকদার।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *