৪ দিনের সফর শেষে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরে গেছেন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা.লোটে শেরিং ঢাকা ও থিম্ফুর মধ্যে আরও যোগাযোগ ও ব্যবসায়িক সুযোগ-সুবিধা অনুসন্ধানের লক্ষ্যে চার দিনের সরকারি সফর শেষে আজ সকালে দেশে ফিরে গেছেন।লোটে সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে ড্রুক এয়ার ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যান।পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.এ কে আবদুল মোমেন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এম এনামুর রহমান ও অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ তাকে বিমানবন্দরে বিদায় জানান।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে গত বছর দায়িত্ব গ্রহণ করার পর ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ডা. লোটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে বাংলাদেশে প্রথম সফর করেন।এ সফরকালে বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে দুই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আনুষ্ঠানিক আলোচনা শনিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আন্তরিক ও উষ্ণতার পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়।এতে চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এবং দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বের প্রতিবেশীসুলভ সম্পর্কের প্রতিফলন ঘটেছে।

পারস্পরিক স্বার্থে দুটি দেশের বাজারে বিভিন্ন পণ্যের শুল্ক ও কোটা মুক্ত প্রবেশাধিকারের অনুমতি দেয়ার জন্য বাংলাদেশ ও ভুটান নীতিগতভাবে সম্মত হয়েছে।পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের বলেন, ‘ভুটান বাংলাদেশের বাজারে ১৬টি পণ্যের শুল্ক ও কোটা মুক্ত প্রবেশাধিকারের দাবি করেছে। বাংলাদেশ দু’দেশের আনুষ্ঠানিক আলোচনার সময় ভুটানের বাজারে ১০টি পণ্যের প্রবেশাধিকার চেয়েছে।দুই দেশের নেতৃবৃন্দ চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ব্যাপারে সন্তোষ প্রকাশ করেন।জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং জিগমে দরজী ওয়াংচুক এই সম্পর্কের দৃঢ় ভিত্তি স্থাপন করেছেন।

উভয় প্রধানমন্ত্রী বিগত দশকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের নতুন উচ্চতায় পৌঁছার বিষয়টি স্বীকার করেন এবং বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে এ সম্পর্ক আরও শক্তিশালী ও দৃঢ় করার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।দ্বিপক্ষীয় আলোচনার পর বাংলাদেশ ও ভুটান স্বাস্থ্য,কৃষি,শিপিং,পর্যটন ও জন প্রশাসন প্রশিক্ষণ প্রদানের ক্ষেত্রে তাদের সহযোগিতার জোরালো করার জন্য পাঁচটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো.আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন।তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া নৈশভোজ অনুষ্ঠানেও যোগ দেন।এছাড়া,ভুটানের প্রধানমন্ত্রী এখানে পররাষ্ট্র,বাণিজ্য,স্বাস্থ্য ও নৌ পরিবহন মন্ত্রীদের সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠক করেন।তিনি এফবিসিসিআই নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করেন।তিনি এ সময় বলেন,ভুটান বাংলাদেশের সঙ্গে বিদ্যমান বাণিজ্য সম্পর্ক বিকাশে অত্যন্ত আগ্রহী এবং আরো বাণিজ্য সম্ভাবনা অনুসন্ধান করতে চায়।ভুটানের প্রধানমন্ত্রী রাজধানীতে নববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।এই সফরকালে ডা. লোটে গতকাল ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে বিদেশী ছাত্র কোটায় তাঁর এমবিবিএস ডিগ্রি লাভ করেন।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *