পর্তুগালে মুক্তিযোদ্ধা কাজী ইমদাদের উদ্যোগে ঈদ পূনর্মিলনী


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

নাঈম হাসান পাভেল
সত্যবাণী

লিসবন,পর্তুগাল থেকেঃ পর্তুগালে বাংলাদেশ কমিউনিটির প্রবীণ সমাজ সেবক মুক্তিযোদ্ধা কাজী ইমদাদের উদ্যোগে ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে স্থানীয় সময় ৯ই জুন (রবিবার) রাতে বাংলাদেশিদের কেন্দ্রস্থল মার্তৃম-মুনিজ এলাকার বেনফরমসো সড়কের দুটি রেস্টুরেন্ট স্পাইসি ও রাধুঁনীতে আয়োজিত হয় এই ঈদ পূনর্মিলনী।ঈদ পরবর্তী সময়ে প্রায় ৪০০ প্রবাসী বাংলাদেশী ঈদ পূনর্মিলনী ও নৈশ্যভোজে অংশ নেয়।এতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের মিলনমেলায় পরিনত হয় লিসবনের মার্তৃম-মুনিজ সড়ক।কাজী ইমদাদ দীর্ঘ সময় ধরে পর্তুগালের বাংলাদেশ কমিউনিটির মানুষের জন্য কাজ করছেন।২০০০ সালের দিকে পর্তুগালে আসেন এই মুক্তিযোদ্ধা।১৯ বছরের জীবনে কাজী ইমদাদ হাজারো মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।পর্তুগালে অভিবাসন সংক্রান্ত নানা কাজে বাংলাদেশিদের কাছে অনন্য ঠিকানা কাজী ইমদাদ।জীবনের শেষদিন পর্যন্ত কাজ করে যেতে চান মানুষের জন্য।

প্রতিবছরই ঈদ পূনর্মিলনীর আয়োজন করে থাকেন এই প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা।ঈদ পূনর্মিলনী আয়োজন নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা কাজী ইমদাদ বলেন,ঈদের পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ কমিউনিটির মানুষদের একত্রিত করে একটি পূনর্মিলনী আমাদের সবাইকে আনন্দঘন একটি মুহুর্ত উপভোগের সুযোগ করে দেয়।আমি প্রতিবছর চেষ্টা করি ঈদ পূনর্মিলনী আয়োজন করতে,এই আয়োজনে প্রবাসী বাংলাদেশীদের আনন্দ করতে দেখে আমার ভালো লাগে।অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কমিউনিটির প্রবীণ নেতৃবৃন্দ,বাংলাদেশি পরিবারগুলো অংশগ্রহণ করেন।ঈদ পূনর্মিলনীতে আগত অতিথিদের জন্য দেশীয় খাবারের নৈশ্যভোজের আয়োজন করা হয়,অংশগ্রহণকারী সকলে খাবার উপভোগ করেন।পরিবার-পরিজন ছাড়া প্রবাসে ঈদ কেবলই আনুষ্ঠানিকতা।তাই বেদনা ভরা মন প্রতিনিয়তই কিছু না কিছুতে আক্ষেপ ঘোচানোর চেষ্টা করে। ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানই গুলো প্রবাসীদের কিছুটা আনন্দের উপলক্ষ্য করে দেয়।প্রবাসী বাংলাদেশিরাও এতে মেতে উঠেন অনাবিল আনন্দে।প্রবাসের ফানসে ঈদে এ ধরনের আয়োজন সবাইকে একত্রিত করে আনন্দ,হাসি,আড্ডার সুযোগ করে দেয়।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *