ট্রাম্প আমাকে ধ্বংস করে দিতে চাইছেন: গ্রিফিন


Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

সত্যবাণী ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প আমার জীবন চিরতরে নষ্ট করে দেয়ার চেষ্টা করছেন। এমন অভিযোগ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কৌতুক অভিনেত্রী ক্যাথি গ্রিফিন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন সিএনএন। সম্প্রতি তিনি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কর্তিত একটি মাথা (প্রতীকী অর্থে) হাতে নিয়ে ফটোসেশন করেন। সেই ছবি প্রকাশ করেন। এতে ভীষণ আহত হয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এমন ছবির নিন্দা জানিয়েছেন ট্রাম্পের ঘোর প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনের মেয়ে চেলসি ক্লিনটনও। তবে ওই ছবি প্রকাশের পর ক্যাথি গ্রিফিনকে নির্যাতন করা হচ্ছে এবং ‘হত্যার হুমকি’ দেয়া হচ্ছে বলে তিনি সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন। এ সময় তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন। শুক্রবারের ওই সংবাদ সম্মেলনে এর জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন গ্রিফিনের আইনজীবী লিসা ব্লুম। তিনি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ও তার পরিবার গ্রিফিনকে টার্গেট করে তাদের ক্ষমতা ব্যবহার করছেন। এতে গ্রিফিন বলেন, আমার সঙ্গে যা করা হচ্ছে তা এই মহান দেশে আর আগে কখনো ঘটেনি। যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষমতাসীন একজন প্রেসিডেন্ট আমার জীবনকে চিরদিনের মতো নষ্ট করে দিতে ব্যক্তিগতভাবে চেষ্টা করছেন। লিসা ব্লুম বলেছেন, এ জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সিক্রেট সার্ভিস যোগাযোগ করেছে গ্রিফিনের সঙ্গে। লিসা বলেন, যেহেতু ফার্স্ট ফ্যামিলি তাকে আঘাত করছে, তাকে মানহানী করা হচ্ছে, হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। তাকে অনেকগুলো চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার অনেক ইভেন্ট বাতিল করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কর্তিত ও রক্তাক্ত মস্তক (প্রতীকী) হাতে নিয়ে ছবি তুলে তা পোস্ট করেন গ্রিফিন। কিন্তু সামাজিক মাধ্যমে এ নিয়ে ঝড় ওঠার পর পরই তা সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যাহার করে নেন গ্রিফিন। এমন ছবি তোলা ও তা প্রকাশ করার জন্য ব্যক্তিগতভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন গ্রিফিন। নিজের ওই ছবি দেখে ‘চমকে ওঠেন’ ট্রাম্পও। তিনি বলেন, নিজেকে নিয়ে লজ্জিত হওয়া উচিত ক্যাথির।

ট্রাম্পপুত্র ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র এক টুইটার বার্তায় বলেন, এটা ন্যক্কারজনক। কিন্তু আশ্চর্যের কিছু না। ক্ষেপেছেন নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনের মেয়ে চেলসি ক্লিনটনও। এই ছবিকে তিনি ‘জঘন্য ও ভুল’ বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, একজন প্রেসিডেন্টকে হত্যা করা নিয়ে মজা করা ঠিক নয়। উল্লেখ্য, তার ওই ছবি তুলেছিলেন সেলিব্রেটি ফটোগ্রাফার টেইলার শিল্ডস। মঙ্গলবার ক্ষমা প্রার্থনা করে ইন্সটাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন গ্রিফিন। তাতে তিনি বলেছেন, আমি আপনার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করি। আমি আসলে সীমা লঙ্ঘন কিেছ। আমি ভুল করেছি। এটা অন্যায় ছিল। তার পক্ষ নিয়ে আইনজীবী লিসা ব্লুমবার্গ বলেন, এই ছবি যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সহিংসতার প্রকাশ হবে তা গ্রিফিন কখনো কল্পনাও করতে পারেন নি। তিনি আসলে এ ছবির মাধ্যমে সহিংসতা বুঝাতে চান নি। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। ক্যাথি গ্রিফিনকে সিএনএনের নতুন বর্ষ বিষয়ক প্রোগ্রাম থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ অনুষ্ঠান ২০০৭ সাল থেকে সাংবাদিক অ্যান্ডারসন কুপারের সঙ্গে তিনি উপস্থাপনা করে আসছিলেন। সেখান থেকে বরখাস্ত করায় ভীষণ আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন গ্রিফিন। এখানেই শেষ নয়, গ্রিফিনকে স্কুয়াটি পোর্টি  থেকে বাতিল করা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে কমপক্ষে ৫টি ইভেন্ট থেকে। তাই ক্যাথি গ্রিফিন ও তার আইনজীবী লিসা ব্লুমবার্গ মনে করেন, এই কৌতুক অভিনেত্রী একজন নারী হওয়ার কারণে কঠিন শাস্তি পাচ্ছেন। তবে তাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেয়া হলেও তিনি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে নিয়ে কৌতুক করে যাবেনই-এমন ঘোষণা দিয়েছেন।

Share on Facebook0Tweet about this on TwitterShare on Google+0Email this to someonePrint this page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *