শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

নিউজ ডেস্ক
সত্যবাণী

ঢাকাঃ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে জাতির বরেণ্য সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ বুধবার সকাল ৭টার পরপর মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তারা।শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে কিছুটা সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান।শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বিদায় নেয়ার পর দলের সিনিয়র নেতাদের নিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে আরও একবার শহীদবেদিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী।এরপর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। স্পিকারের পর বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে স্মৃতিসৌধে ভিড় জমান আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালির বিজয় নিশ্চিত হওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তে এ দেশের দোসরদের সহযোগিতায় বুদ্ধিজীবীদের পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে পাকিস্তানি বাহিনী।স্বাধীনতা পেলেও বাঙালি যাতে কোনো দিন মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে, সে জন্য পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকার, আলবদর, আলশামস বাহিনীর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় নির্মমভাবে হত্যা করা হয় দেশের সূর্যসন্তানদের।আলবদর যাদের হত্যা করে, সেই তালিকায় ছিলেন মুনীর চৌধুরী, শহীদুল্লা কায়সার, ড. মোফাজ্জল হায়দার চৌধুরী, সিরাজুদ্দীন হোসেন, নিজামুদ্দীন আহমদ, গিয়াসউদ্দিন আহমদ, ডা. ফজলে রাব্বী, ডা. আলীম চৌধুরী, সেলিনা পারভীনসহ আরও অনেকে।তাদের স্মরণে প্রতি বছর ১৪ ডিসেম্বর পালন করা হয় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস।এ দিবস উপলক্ষে আলাদা বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রাষ্ট্রীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় সভাপতি হিসেবে যোগ দেবেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

You might also like